ইস্কাটনের জোড়া খুন মামলার রায় হয়নি তিন বছরেও 

দীর্ঘ ৩ বছর পার হলেও রায় হয়নি রাজধানীর নিউ ইস্কাটন রোডের জোড়া খুন মামলার। এই জোড়া খুন মামলায় প্রধান আসামি ছিলেন মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) ও সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য পিনু খানের ছেলে বখতিয়ার আলম রনি।

মঙ্গলবার (৮ মে) এ মামলার রায় ঘোষণার কথা থাকলেও রায় দেননি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আল মামুন। অধিকতর যুক্তিতর্কের প্রয়োজন বলে মনে করায় রায় ঘোষণা করা হয়নি বলে জানিয়েছেন সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর মো. শাহাবুদ্দিন মিয়া।

মো. শাহাবুদ্দিন মিয়া আরো জানান, অধিকতর যুক্তিতর্ক কবে শুরু হবে, তা পরে জানিয়ে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ১৩ এপ্রিল গভীর রাতে নিউ ইস্কাটনে মদ্যপ অবস্থায় রনি নিজ গাড়ি থেকে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়েন। এতে রিকশাচালক হাকিম ও অটোরিকশাচালক ইয়াকুব আলী আহত হন। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৫ এপ্রিল হাকিম এবং ২৩ এপ্রিল ইয়াকুব মারা যান। ওই ঘটনায় নিহত হাকিমের মা মনোয়ারা বেগম থানায় অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করলে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পায়।

পরে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ৩১ মে এলিফ্যান্ট রোডের বাসা থেকে বখতিয়ার আলম রনিকে আটক করা হয়। চলতি বছরের ১০ এপ্রিল রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক শুনানি শেষে রায় ঘোষণার জন্য এ ৮ মে দিন ধার্য করেছিলেন বিচারক মো. আল মামুন।

জানা যায়, ২০১৫ সালের ২১ জুলাই এমপিপুত্র বখতিয়ার আলম রনিকে একমাত্র আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) দীপক কুমার দাস। চলতি বছরের ৬ মার্চ রনির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত। সর্বশেষ গত বছরের ২৮ মার্চ পাঁচজন সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য দেন। এ মামলায় এখন পর্যন্ত বাদী মনোয়ারা বেগম ও ইয়াকুব আলীর স্ত্রী সালমা বেগমসহ সব মিলিয়ে ১৪ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়েছে।