একটু বৃষ্টিতেই সড়কে জলাবদ্ধতা, চরমে দুর্ভোগে পথচারীরা

কুাড়িগ্রামের নাগেশ্বরী পৌরসভার রাস্তার মোড়সহ বিভিন্ন জায়গায় অল্প বৃষ্টিতে পানি জমে থাকায় চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন পথচারীরা। রাস্তায় বের হলেই এমন করুণ দৃশ্য চোখে পরে নাগেশ্বরী পৌরসভার কলেজ মোড়, ফুলবাড়ী রোড মোড়, টিএন্ড টি মোড়, কামিল মাদরাসা সংলগ্ন, বিএসসি মোড়, উপজেলা প্রশাসন গেট, বাসস্ট্যান্ডসহ আরো অনেক জায়গায়। 

অনেক স্থানে কার্পেটিং উঠে যাওয়ায় ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে, প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ রাস্তা মেরামত না করায় এমন দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন পথচারীরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সামান্য বৃষ্টিতেই কাদা পানি জমে আছে। খানা খন্দক জায়গাগুলোতে প্রায় হাঁটু পানি বন্দি হয়ে যায়। ফলে যানবাহন ও পথচারীদের চলাচল ব্যহত হচ্ছে। এমনকী এসব জায়গায় ডোবার সৃষ্টি হয়ে দূষিত পানির দুর্গন্ধে বিভিন্ন ধরনের রোগ বালাই ছড়ানোর সম্ভাবনা সৃষ্টি হচ্ছে।

অন্যদিকে দ্বিতীয় ধরলা সেতুটি উদ্বোধন করায় রাস্তাটি ব্যাস্ত হয়ে পড়েছে নাগেশ্বরীর বিভিন্ন সড়কগুলো। সহজ কোন বিকল্প রাস্থা না থাকায় স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসাগামী শিক্ষার্থীরা যথা সময়ে তাদের গন্তব্যে পৌঁছাতে পারছে না।

নাগেশ্বরী আদর্শ লাইব্রেরির পরিচালক শফিকুল ইসলাম জানান, তিনি রাস্তার এমন বেহাল অবস্থার কারনে চলার পথে বিএসসি মোড়ে দুর্ঘটনার শিকার হন।

একই অভিযোগ করেন শিশু বিতানের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জহুরুল হক মিঠু।

কলেজগামী শিক্ষার্থী শামিমা আক্তার, শামসুন্নাহার, নাজমুল হোসাইন জানায়, প্রতিদিন কলেজ মোড় হয়ে কলেজে যেতে হয়। জলাবদ্ধতার কারণে কাদা পানিতে কাপড় নষ্ট হয়ে যায়। পিছলে পড়ার ভয়ে বুকটা আঁতকে ওঠে। পৌর কর্তৃপক্ষ দেখেও না দেখার ভান করছে বলেও অভিযোগ ভুক্তভোগী পথচারীদের।

নাগেশ্বরী পৌরসভার মেয়র আব্দুর রহমান মিয়া বলেন, ফুলবাড়ী কুলাঘাট থেকে নাগেশ্বরী এলাকার এসব সড়কের জন্য এলজিইডি থেকে টেন্ডার আহবান করা হয়েছে। আগামী ২৯ তারিখ টেন্ডার ড্রপ হবে। এরপরই এসব সড়কের কাজ শুরু হবে।

মোঃ মনিরুজ্জামান, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি