প্রধান ফটকে ময়লা ফেলে কর ও ভ্যাট আদায়!

গতকাল বুধবার দুপুরে কক্সবাজার সৈকতের কলাতলী এলাকায় আবাসিক হোটেলের প্রধান ফটকে ময়লা ফেলে পৌর কর ও ভ্যাট আদায় করা হয়। কর ও ভ্যাট আদায়ের এমন অভিনব কৌশলে পর্যটকেরা বিব্রত হন।

গতকাল কক্সবাজার সৈকতের কলাতলী এলাকায় চারটি আবাসিক হোটেলের প্রধান ফটকে কয়েক ঘণ্টার জন্য ময়লা ফেলে রাখে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। পৌর কর ও ভ্যাট আদায়ের জন্য এমন অভিনব কৌশল নেওয়া হয় বলে জানা যায়। হোটেলগুলো হলো হোটেল জামান, সি ওয়েভ, কক্স ভেলি ও সি পয়েন্ট রিসোর্ট। তবে এতে হোটেলগুলোতে আসা পর্যটকেরা বিব্রত হয়েছেন।

হোটেল জামানের ব্যবস্থাপক শাহ নিয়াজ জানান- ‘দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আকস্মিক ভাবে পৌরসভার পরিচ্ছন্নতা কাজে নিয়োজিত কর্মীরা হোটেলের সামনে ট্রাকে করে বিপুল পরিমাণ ময়লা নিয়ে আসেন। এরপর কাউকে কিছু না বলে ময়লাগুলো হোটেলের প্রধান ফটকে ফেলতে থাকেন। দুর্গন্ধে হোটেলের লোকজন হইচই শুরু করেন। ময়লার কারণে হোটেলে আসা-যাওয়ার পথও বন্ধ হয়ে যায়। একই ভাবে অন্য তিনটি হোটেলের সামনেও ময়লা ফেলা হয়। এতে ওই হোটেলগুলোর স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।’

এ প্রসঙ্গে পৌরসভার মেয়র (ভারপ্রাপ্ত) মাহবুবুর রহমান চৌধুরীর বলেন, ‘কয়েক দফা নোটিশ দেওয়ার পরও হোটেলগুলো পৌর কর ও ভ্যাট দিচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়ে এমন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পৌরসভার পরিচ্ছন্নতায় প্রকল্প পাওয়ার জন্য ৮৫ ভাগ ভ্যাট আদায় দেখাতে হয়। কিন্তু কক্সবাজারে এখন পর্যন্ত ৩৪ ভাগ ভ্যাট আদায় করা সম্ভব হয়েছে। ভ্যাট আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন না হওয়ায় আমরা প্রকল্প থেকে বঞ্চিত হচ্ছি।’

উল্লেখ্য, বেলা তিনটার দিকে ময়লাগুলো ফের সরিয়ে নেয় পৌর কর্তৃপক্ষ।