ট্যাক্স ফাইলের বাইরে আমার আর কোনও সম্পদ নেইঃ ডিআইজি

পুলিশের ডিআইজি মিজানুর রহমান দাবি করেন, সরকারি ট্যাক্স ফাইলের বাইরে আমার কোনও সম্পদ নেই। বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় দুদক কার্যালয় থেকে বের হয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে এ দাবি জানান তিনি।

তিনি বলেন, আমার সম্পদের ব্যাপারে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কর্মকর্তারা দীর্ঘক্ষণ কথা বলেছেন। ট্যাক্স ফাইলের বাইরে আমার আর কোনও সম্পদ নেই। স্বজনদের সম্পদের ব্যাপারে ডিআইজি মিজান বলেন, আমার পরিবার কিংবা স্বজনদের সবার ট্যাক্স ফাইল আছে।

নারীঘটিত অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এ সংক্রান্ত অভিযোগের তদন্ত চলছে। অভিযোগের প্রমাণ পেয়েছেন কিনা তা তারাই (স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়) ভালো বলতে পারবেন। এক নারীর সঙ্গে আপত্তিকর কথোপথন সম্পর্কে জানতে চাইলে ডিআইজি মিজান বলেন, নারী সাংবাদিকের সঙ্গে কথোপকথন হয়েছে। এ জন্য আমি স্যরি। উল্লেখ্য যে, অবৈধ সম্পদ অর্জনসহ দুর্নীতির একাধিক অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বৃহস্পতিবার সকালে ডিআইজি মিজানুর রহমানকে দুদক কার্যালয়ে তলব করা হয়।

দুদক সূত্রে জানা গেছে, ডিআইজি মিজান ক্ষমতার অপব্যবহার করে শত কোটি টাকার মালিক হয়েছেন। তার নামে-বেনামে বিলাসবহুল বাড়ি, গাড়ি, ফ্ল্যাট রয়েছে। একাধিক ব্যাংক হিসাবে রয়েছে বিপুল অর্থ ও ফিক্সড ডিপোজিট। এছাড়া দেশের বাইরে অর্থ পাচারেরও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এসব অভিযোগের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে তলব করা হয়।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে ডিআইজি মিজান দুদকের সেগুনবাগিচার প্রধান কার্যালয়ে হাজির হন। এরপর সাড়ে ৯টার দিকে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়। অভিযোগ তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।