‘রোহিঙ্গাদের নিয়ে উদ্বিগ্ন বলেই বাংলাদেশে এসেছি’

বিমানবন্দরে জাতিসংঘ প্রতিনিধি দল সংবাদ সম্মেলনে বলেন, রোহিঙ্গাদের নিয়ে উদ্বিগ্ন বলেই আমরা বাংলাদেশে তাদের দেখতে এসেছি। সোমবার সকালে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরা মিয়ানমারের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার আগে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

জাতিসংঘে নিযুক্ত পেরুর রাষ্ট্রদূত ও প্রতিনিধি দলের নেতা গাসতাভো আদোলফো মেজা কাউদ্রা ভেলাসকেজ বলেন,  ‘আমরা এখানে এসেছি, কারণ আমার উদ্বিগ্ন। রোহিঙ্গা ইস্যুতে সব কিছু ধীর গতিতে চলছে। এ কারণেই আমরা বাংলাদেশে এসেছি। আপনারা জানেন সেক্রেটারি জেনারেল একজন বিশেষ রাষ্ট্রদূত নিয়োগ করেছেন। এ সমস্যার সমাধানে আমরা অংশ নেওয়ার চেষ্টা করছি। আমার ধারাবাহিকভাবে আলোচনা চালিয়ে যাবো, এটি আমাদের অন্যতম আলোচ্য বিষয়।’

জাতিসংঘের যুক্তরাজ্যের স্থায়ী প্রতিনিধি কারেন পিয়েরেস বলেন, ‘মিয়ানমার অথরিটি তাদের নিজস্ব তদন্ত শুরু করেছে। আমরা মিয়ানমারের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলবো। কীভাবে তারা এ ঘটনার জবাবদিহিতা নিশ্চিত করে তা দেখবো। এরপর আমরা চেষ্টা করবো কীভাবে সিকিউরিটি কাউন্সিল কাজ করতে পারে।

চীন ও রাশিয়া সংকট নিরসনে বাধা কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে-জাতিসংঘে নিযুক্ত কুয়েতের স্থায়ী প্রতিনিধি মানসুর আয়াদ আলওতায়বি বলেন, ‘আমরা দেখছি চীন ও রাশিয়া কোন ধরনের বাধা দিচ্ছে না। তারা নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য, তারা আমাদের সঙ্গেই আছে। আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তার সঙ্গে এর সমাধানের বিষয়ে আলোচনা করেছি।’