সিরাজদিখানে বাবার হাতে ছেলে খুন, বাবা আটক

সিরাজদিখানে বাবার হাতে শিশু ছেলে খুন হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ইছাপুরা ইউনিয়নের পূর্ব ইছাপুরা গ্রামে। আজ রোববার সকালে ময়না তদন্তের জন্য লাশটি মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ৪ বছর আগে অনিতার বিয়ে হয়েছিল কৃষ্ণ দাসের সাথে। অভাব অনটনের কারনে সেই সংসারটি টিকেনি । আগের স্বামী কৃষ্ণকে কোর্টের মাধ্যমে অনিতা ডিফোর্স দেয়। সেই ঘরের ছেলে এই অনিক। পরে অনিতার সাথে মধাব পালের বিয়ে হয় দেড় বছর আগে। ৮ মাস ধরে ইছাপুরা শাহ আলমের বাড়িতে ভাড়া থাকে তারা ।

শিশুটির মা অনিতা মন্ডল (২২) জানান, শনিবার সন্ধ্যায় আমার সাড়ে ৩ বছরের ছেলে অনিক দাসকে ঘরে রেখে থালা বাসন ধুঁতে যাই। কিছুক্ষণ পর এসে দেখি ছেলেটি তার বাবা মধাব পাল অনিকের এক হাত ধরে ঝুলিয়ে রেখেছে এবং অনিকের নাক মুখ দিয়ে রক্ত বেড় হচ্ছে। চিৎকার দিলে আস পাশের লোকজন ছুটে এসে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। আমার ছেলে কি অন্যায় করেছিল ও আমার ছেলেকে মেরে ফেলল বলে কান্নায় ভেঙ্গে পরেন অনিতা। এই ঘটনায় পাষান্ড বাবা মধাব পালকে শনিবার রাতে সিরাজদিখান থানা পুলিশ আটক করে।

সিরাজদিখান থানার ওসি আবুল কালাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শিশুটির বাবা মধাব পালকে আটক করা হয়েছে মামলার প্রস্তুতি চলছে। ময়না তদন্তের জন্য লাশটি মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি