আমেরিকার গুপ্তচরকে পেশোয়ার থেকে পাঞ্জাব কারাগারে স্থানান্তর

আমেরিকার পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তি করার দায়ে কারাদণ্ডপ্রাপ্ত পাকিস্তানি ডাক্তার শাকিল আফ্রিদিকে নিরাপত্তার আশঙ্কায় পেশোয়ার থেকে পাঞ্জাবের আদিয়ালা কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে। শাকিল আফ্রিদি ২০১১ সালে টিকাদান কর্মসূচি পরিচালনার ছদ্মাবরণে আল-কায়েদা নেটওয়ার্কের সাবেক প্রধান বিন লাদেনের অবস্থান শনাক্ত করে আমেরিকার কাছে সে তথ্য তুলে দিয়েছিলেন। এরপরই বিন লাদেনের গোপন আস্তানায় হামলা চালিয়ে তাকে হত্যা করে মার্কিন বিশেষ বাহিনী।

পরবর্তীতে বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় পাকিস্তানের আদালত শাকিল আফ্রিদিকে ৩৩ বছরের কারাদণ্ড দেয়। পাকিস্তানের নিরাপত্তা কর্মকর্তারা বলছেন, পেশোয়ার কারাগারে হামলা চালিয়ে শাকিল আফ্রিদিকে মুক্ত করার প্রচেষ্টা চালানো হতে পারে বলে গোপন খবর পেয়ে আমেরিকার ওই গুপ্তচরকে সেখান থেকে সরিয়ে পাঞ্জাব প্রদেশের আদিয়ালা কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে।

সৌদি আরবে জন্মগ্রহণকারী ওসামা বিন লাদেন আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী সংগঠন আল-কায়েদার প্রতিষ্ঠাতা। বিশেষ করে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে টুইন টাওয়ারে সন্ত্রাসী হামলার পর বিশ্বজুড়ে ব্যাপক পরিচিতি পান তিনি।

২০১১ সালে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদ শহরে মার্কিন কমান্ডোদের হামলায় ওসামা বিন লাদেন নিহত হন। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মার্কিন কমান্ডোরা হেলিকপ্টারযোগে লাদেনের বাসভবনে হামলা চালায়।  ওই অভিযানে বিপুল সংখ্যক নথি, ছবি ও কম্পিউটার ফাইল উদ্ধার করার দাবি করে ওয়াশিংটন। তবে অনেক পর্যবেক্ষক বিন লাদেনকে হত্যার পুরো ঘটনাকে সাজানো নাটক বলে দাবি করেছেন।