কেটে ফেলা হয়েছে রুজিনার ঝুলে থাকা পা!

বাসের চাপায় পা হারানো রুজিনা আক্তার (১৭) নামক সেই তরুণীর ডান পা হাঁটুর উপরিভাগ পর্যন্ত কেটে ফেলা হয়েছে।গতকাল শুক্রবার রাতে রাজধানীর বনানীর চেয়ারম্যানবাড়ি এলাকার ফুটওভার ব্রিজের কাছে বিআরটিসিরএকটি বাস তাঁকে চাঁপা দেয়।

ঘটনার পর পুলিশ তাকে উদ্ধার করে দ্রুত জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানে (পঙ্গু হাসপাতাল) নিয়ে যায়। ময়মনসিংহের ধোবাউড়া ঘোষগাঁও এলাকায় রুজিনার বাড়ি। তার বাবার নাম রসুল মিয়া। বর্তমানে নিকেতন ১২ নম্বর সড়কে একজন সাংবাদিকের বাসায় কাজ করে সে। এদিকে ঘটনার পর পুলিশ বিআরটিসি বাসটিসহ চালক শফিকুলকে আটক করেছে।

বনানী থানার ওসি ফরমান আলী বলেন, গতকাল রাত ৯টার দিকে চেয়ারম্যানবাড়ি ফুটওভার ব্রিজের কাছে ওই নারী ফুটপাত থেকে নেমে রাস্তা পার হওয়ার চেষ্টা করছিলেন। ওই সময় মহাখালী থেকে কাকলীমুখী বিআরটিসির একটি বাস তাকে ধাক্কা দেয়। এতে তার পায়ে আঘাত লাগে। পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে পঙ্গু হাসপাতালে নিয়েছে।

পঙ্গু হাসপাতালে জরুরি বিভাগে প্রাথমিক চিকিত্সার সময় রুজিনা সাংবাদিকদের জানায়, সে নিকেতনের একটি বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করে। গতকাল এক বান্ধবীর সঙ্গে দেখা করতে মহাখালীর আমতলীতে যায়। সেখানে থেকে নিকেতনে ফেরার জন্য সে রাস্তায় যায়। হাত উঁচিয়ে বাসটিকে থামার সংকেত দেয়। কিন্তু বাসটি না থেমে তার ওপর দিয়ে উঠিয়ে দেয়।

সে জানায়, প্রথমে সে ধাক্কা খায়। পরে বাসটি তার পায়ের ওপর চাকা তুলে দিয়ে চলে যায়।