মন্ত্রণালয়ের বাস চাপায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় ট্রাফিক পরিদর্শক

গত সোমবার তখন সময় সকাল সাড়ে ৮টা। রাজধানীর পলাশী এলাকায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একটি বাস উল্টো পথে চলছিল। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বহন করা বাসটি (ঢাকা মেট্রো চ-০৮-০০৫৩) নীলক্ষেতের দিক থেকে উল্টোপথে পলাশী হয়ে সচিবালয়ের দিকে যাচ্ছিল। তাতে বাধা দেন কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ। এতে চালক নজরুল ইসলামসহ বাসের হেলপার ও মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা পুলিশের সঙ্গে তর্কে জড়ান। দূর থেকে এমন অবস্থা দেখে ঘটনাস্থলে ছুটে যান ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক দেলোয়ার হোসেন। তার সঙ্গেও তর্কে জড়ান বাসে থাকা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এমনকি তার পোশাক ধরেও টানাটানি করেন তারা। এরই একপর্যায়ে চালক বাসটি চালিয়ে দেন। এতে দেলোয়ারের বাম পা বাসের চাকার নিচে পড়ে থেঁতলে যায়।

এরপর প্রথমে তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখান থেকে নেয়া হয় পান্থপথের স্পাইনাল অর্থোপেডিক হাসপাতালে। এই হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হন দেলোয়ার। পরে সোমবারই আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে স্কয়ার হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) আনা হয়।

এ বিষয়ে ট্রাফিক পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার রুহুল আমিন সাগর জানান, এইচএসসি পরীক্ষা থাকার কারণে সেদিন রাস্তায় যানজট ছিল। এ কারণে পুলিশ সদস্যরা উল্টোপথে না যাওয়ার জন্য বাসের চালককে অনুরোধ করেন। তিনি সেই কথা না শুনে ইচ্ছে করেই ট্রাফিক পরিদর্শক দেলোয়ারের ওপর বাস চালিয়ে দেয়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার শাহবাগ থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

এদিকে ঘটনার চারদিন পেরিয়ে গেলেও সেই বেপরোয়া বাসচালক নজরুল ইসলামকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।