টংগীবাড়ীতে সাংবাদিকতার নামে চাঁদাবাজি অভিযোগ ও মানববন্ধন

মুন্সীগঞ্জের টংগীবাড়ী উপজেলায় সাংবাদিকতার নামে চলছে চাঁদাবাজি। ‘‘আমরা হয়রানীর শিকার বিচার চাই’’ স্লোগান নিয়ে কথিত সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ভূক্তভোগীদের থানায় অভিযোগ ও মানববন্ধন হচ্ছে। উপজেলার খাঁন বাক্কার না মক ব্যাক্তি নিজেকে দৈনিক মানব জমিনের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে দাবরীয়ে বেড়াচ্ছে সর্বত্র।

ভূক্ত ভোগীদের অভিযোগ তাকে চাঁদা না দিলে সে বিভিন্ন ভাবে হয়রানী করে থাকে। খাঁন বাক্কার উপজেলার আউটশাহী ইউনিয়নের দোরাবতী গ্রামের মৃত ইউসুফ খাঁর ছেলে। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজীর একাধিক অভিযোগে টংগীবাড়ী থানা সহ উপজেলা প্রশাষনের নিকট দাখিল হয়েছে। ইতিপূর্বে সে জেল হাজতে দীর্ঘ দিন আটক ছিল। সে চাঁদাবাজি, ভূমি অফিসে দালালি, মিথ্যা মামলা মোকদ্দমা দায়ের, বাল্য বিয়ে পরানো সহ বিভিন্ন অপরাধে জরিত।

তার বিরুদ্ধে শনিবার বিকেলে উপজেলার বালিগাও পেট্রোল পাম্পের সামনে ভূক্তভোগী জনগন, টংগিবাড়ী উপজেলার আয়োজনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল হয়। ভূক্তভোগী সিরাজুল ইসলাম জানান- সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে খাঁন বাক্কার ও তার সহযোগী কোর্টের দালাল জয়নাল শিকদার তার নিকট চাঁদা দাবী করে, চাঁদা না দেওয়ায় তাকে মামলা দিয়ে হয়রানী করা হচ্ছে। তিনি আরো জানান- তার এলাকার রোজিনা ইসলাম এর সাথে তার সম্পত্তি সংক্রান্তে বিরোধের সৃষ্টি হয়। উক্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে নিজেকে জাতীয় পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে খাঁন বাক্কার ও তার সহযোগী নিজেকে বড় উকিলের ডান হাত দাবী করে জয়নাল শিকদার চাঁদা দাবী করে। তিনি তাদের দাবীতে সম্মতি না দেওয়ায় তাকে মামলা মোকদ্দমা দিয়ে শায়েস্থা করবে বলে হুমকি দেয়। পরবর্তীতে উক্ত রোজিনাকে দিয়ে তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা মোকদ্দমা সহ ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে মামলা দায়ের করায়।

টংগিবাড়ী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইয়ারদৌস হাসান জানান- তার নিকট কয়েকটি অভিযোগ জমা হয়েছে যাহা তদন্তাধীন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসিনা আক্তার জানান- আমার নিকট অভিযোগ দিয়েছে আমি বিষয়টি খোঁজ খবর রাখছি।

আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি