দেখা না করেই কারাফটক থেকে ফিরলেন ফখরুল

কারাবন্দি খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে অপেক্ষা করে বিফল হয়ে ফিরতে হয়েছে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপির তিন নেতাকে। বৃহস্পতিবার বিকালে তার সঙ্গে দেখা করতে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে গিয়েছিলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান। বিএনপিনেত্রীর অসুস্থতা নিয়ে নানা আলোচনার মধ্যে তার সঙ্গে দেখা করতে যান।

বিকাল ৩টা ৩৫ মিনিটে তারা কারাগারে পৌঁছালে তাদেরকে ফটকসংলগ্ন অনুসন্ধান কেন্দ্রে অপেক্ষা করতে বলা হয়। ১৫ মিনিট পর কারা কর্তৃপক্ষ বিএনপি প্রধানের সঙ্গে দেখা হবে না বলে জানিয়ে দেয়। পরে সেখান থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, “ম্যাডামের স্বাস্থ্য খারাপ জেনে আমরা দেখা করার অনুমতি পেয়েছিলাম। গত পরশু আমাদেরকে একটা সময় দেওয়া হয়েছিল, সেটা বাতিল করে আজকে আবার সময় দেওয়া হয়েছে…৩টা থেকে ৪টার মধ্যে। আমরা সে কারণেই এসেছিলাম। “এখন আমাদেরকে বলা হচ্ছে, আজকেও সম্ভব হচ্ছে না। দুই-একদিনের মধ্যে হতে পারে। কর্তৃপক্ষ আমাদেরকে সে কথাটাই বলেছে। সে কারণেই সম্ভব হয় নাই।”

কেন দেখা হয়নি প্রশ্ন করা হলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, “এটা আমরা বলতে পারব না। আইজি প্রিজন সাহেব নাই, কাশিমপুরে গেছেন। এটাই আমরা জানতে পেরেছি।”

গত ৬ এপ্রিল মির্জা ফখরুল কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছিলেন। এর পরদিনই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নেওয়া হয় বিএনপিপ্রধানকে। কারাবন্দি খালেদা জিয়া সঠিক চিকিৎসা পাচ্ছেন না বলে বিএনপির অভিযোগ রয়েছে। যদিও ওইদিন তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, বিএনপিনেত্রীর পছন্দের চিকিৎসকরাই তাকে দেখেছেন। বুধবারও কারাগারে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত দুই চিকিৎসক দেখা করেছেন বলে জানা গেছে।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া এতিমখানা ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের সাজার রায়ের পর থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ওই কারাগারে রাখা হয়েছে। এর আগে গত ২৯ মার্চ খালেদা জিয়ার সঙ্গে মির্জা ফখরুলের সাক্ষাতের কথা থাকলেও বিএনপিনেত্রীর অসুস্থতার কারণে তা স্থগিত হয়ে যায়। ওই খবরে বিএনপির উদ্বেগের মধ্যে সরকার পরে খালেদার চিকিৎসায় একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করে। চার সদস্যের এই বোর্ডের সদস্যরা স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে জানান, সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর অসুস্থতা ‘গুরুতর নয়’।

খালেদা কারাগারে যাওয়ার পর তার বোন সেলিনা ইসলাম, ছোট ভাই শামীম এস্কান্দর, স্ত্রী কানিজ ফাতিমাসহ পরিবারের সদস্যরা একাধিকবার তার সঙ্গে দেখা করেছেন। এছাড়া খালেদা জিয়ার জ্যেষ্ঠ আইনজীবীরাও দুই দফা কারাগারে দেখা করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে।