মহেশপুরে ভুল চিকিৎসায় প্রসুতির মৃত্যু

ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার জিন্নানগর বাজারে অবস্থিত মনোয়ারা পাইভেট হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে আবারো রেহেনা (৩৫) বেগম নামের এক প্রসুতির মৃত্যু হয়েছে। রেহেনা বেগম মহেশপুর উপজেলার পলিয়ানপুর গ্রামের মহর আলীর স্ত্রী।

অভিযোগ পাওয়া গেছে গত শুক্রবার রেহেনা বেগম সিজারের জন্য মনোয়ারা প্রাইভেট এন্ড ডায়গনস্টিক সেন্টারে ভর্তি হন। দুপুরে সোহেল রানা নামে এক ভাড়াটিয়া ডাক্তার তাকে সিজার করেন। সিজারের ফলে তার শরীরে তীব্র যন্ত্রনা শুরু হয়। তারপরও ক্লিনিকে রেখেই সোহেল রানাকে দিয়ে চিকিৎসা চলতে থাকে। স্বামী মহর আলী জানান রোগীর অবস্থা বেগতিক দেখে ক্লিনিক পরিচালক মঞ্জুয়ারা বেগম ঘুমের ইনজেকশন পুষ করেন। এতে প্রসুতি রেহেনা খাতুন জ্ঞানহারা হয়ে পড়েন।

ক্লিনিক পরিচালক মঞ্জুয়ারা ও সহককারি পরিচালক জুলফিক্কার আলী ঘটনার দিন সন্ধ্যায যশোর নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন রেহেনা। শনিবার সকালে ক্লিনিক মালিক ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সাথে আর্থিক লেনদেনের মাধ্যমে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে সক্ষম হন। অভিযোগ রয়েছে, ওই ক্লিনিকে ইতিপুর্বে শিশুসহ চারজন প্রসুতি মৃত্যু বরণ করেন।

বিষয়টি নিয়ে ক্লিনিকের সহকারি পরিচালক জুলফিক্কারের সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমরা রোগীকে বাচানোর জন্য চেষ্টা করেছি, কিন্তু পারেনি। বিষয়টি নিয়ে মহেশপুর হাসপাতালের টিএইচও ডাক্তার নাসির উদ্দিন বলেন প্রাইভেট হাসপাতাল ক্লিনিক ও ডায়গনিস্টিক সেন্টার নিয়ন্ত্রন করেন ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন অফিস। এ ক্ষেত্রে আমাদের করার কিছু নেই।

মোঃ জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here