এশাকে বহিষ্কারাদেশ দেওয়া সংবিধানের পরিপন্থীঃ হাছান মাহমুদ

‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সুফিয়া কামাল হলের ছাত্রলীগের সভানেত্রী ইফফাত জাহান এশাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বহিষ্কারাদেশ দেওয়া দেশের মৌলিক অধিকার ও সংবিধানের পরিপন্থী। তাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করাও ঠিক হয়নি।’ এ কথা বলেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনাবিষয়ক সম্পাদক হাছান মাহমুদ। শুক্রবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দলটির এই মুখপাত্র এ কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, সুফিয়া কামাল হলের ছাত্রলীগের সভানেত্রীকে যে প্রক্রিয়ায় ছাত্রলীগ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়, সেটি সঠিক ছিল না। ছাত্রলীগ তার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে আমি মনে করি।

তদন্ত ছাড়া এশাকে বহিষ্কার করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সমালোচনা করে হাছান মাহমুদ বলেন, একজন ছাত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ আসার পর কোনো তদন্ত ছাড়া মৌখিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের ঘোষণা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো প্রতিষ্ঠান দিতে পারে, তা আমার কল্পনারও বাইরে ছিল। এটি দেশের মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী, সংবিধানপরিপন্থী, যেটি সমীচীন হয়নি। যে কেউ অপরাধ করলে সেটির তদন্ত হতে হবে। তদন্তের পর শাস্তি হবে। এখানে কোনো তদন্তই করা হয়নি।