মতিয়া চৌধুরীর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি

মঙ্গলবার ১০ এপ্রিল বেলা ১১ টা ২০ মিনিটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এক সংবাদ সম্মেলন থেকে ঘোষণা দেওয়া হয় যে, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের নিয়ে সংসদে দেওয়া বক্তব্য বিকেল ৫টার মধ্যে প্রত্যাহার না করলে ফের অবরোধ কর্মসূচি পালন করে হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

সোমবার ০৯ এপ্রিল সংসদে বক্তব্য দেয়ার সময় কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়েও বক্তব্য রাখেন। তিনি সেসময় বলেন- ‘যারা দেশের জন্য জীবন বাজি রাখেন, পৃথিবীর সব দেশে তাদের জন্য বিশেষ সুযোগ থাকে। মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানেরা সুযোগ পাবে না, রাজাকারের বাচ্চারা সুযোগ পাবে? তাদের জন্য মুক্তিযোদ্ধা কোটা সংকুচিত হবে? রাজধানীকেন্দ্রিক একটি এলিট শ্রেণি তৈরির চক্রান্ত চলছে। তারই মহড়া গতকাল আমরা দেখলাম।’

তার এই বক্তব্যের জন্য তাকে ক্ষমা চাইতে হবে বলে দাবি করা হয়। বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ব্যানারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম-আহ্বায়ক রাশেদ খান একথা বলেন। তিনি বলেন- ‘মঙ্গলবার বিকেল ৫টার মধ্যে মতিয়া চৌধুরী ক্ষমা ও বক্তব্য প্রত্যাহার না করলে আমরা সারাদেশে অবরোধ কর্মসূচি পালন করবো।’

এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হল থেকে কোনো আন্দোলনকারীকে বের করে না দেওয়ার অনুরোধ করা হয় সংবাদ সম্মেলনে।