ভ্যাট নিয়ে করা নিজের উক্তিকেই ভুল বললেন অর্থমন্ত্রী

আজ মঙ্গলবার অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জানিয়েছেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাট আরোপ করা হবে না তবে মালিকদের ইনকাম ট্যাক্স (আয় কর) দিতে হবে। তিনি বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য ভ্যাট আরোপ হবে না। তাদেরকে ইনকাম ট্যাক্স দিতে হবে। আমি বোধ হয় কালকে একটু ভুল বলে ফেলেছিলাম। নভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের নগদ লভ্যাংশ প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় আইসিব’র পরিচালনা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মজিব উদ্দিন আহমদ, অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের অতিরিক্ত সচিব কামরুন নাহার আহমেদ, মানিক চন্দ্র দে, সালমা নাসরিন, যুগ্মসচি মো. হুমায়ুন কবির প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অর্থমন্ত্রী বলেছেন, অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কোনো ইনকাম ট্যাক্সের আওতায় নেই। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো লাভ করে তাই তাদেরকে আয়কর দিতে হবে। এর আগে আমরা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপর ভ্যাট আরোপ করেছিলাম। কিন্তু পরবর্তীতে সেটা বস্তবায়ন করিনি।

অর্থমন্ত্রী বলেন, সাধারণত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইনকাম ট্যাক্স দেয় না। কিন্তু তারা (বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়) যে রকম চার্জ ধরে সেটা দিয়েইতো লাভ করে।

ইনকাম-ট্যাক্সের বিষয়ে এক সাংবাদিক ক্লিয়ার হতে চাইলে মুহিত বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো যত টাকা লাভ করবে তার উপর ইনকাম-ট্যাক্স দেবে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো কাগজে কলমে অলাভজনক বলা হয় এক্ষেত্রে কিভাবে আয় কর দেবে তারা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সবসময় অলাভজনক বলা হয়না। অনেক সময় অলাভজনক বলতে চেষ্টা করা হয়। সেখানে ফাঁক-ফোকর দেখবে ইনকাম-ট্যাক্সের লোকেরা। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ ও ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের উপর সাড়ে ৭ শতাংশ ভ্যাট আরো করার প্রস্তাব করা হয়। কিন্তু শিক্ষাক্ষেত্রে ভ্যাট আরোপের বিরুদ্ধে টানা কয়েক দিন শিক্ষার্থীদের তীব্র আন্দোলন করে। আন্দোলনের মুখে ভ্যাট প্রত্যাহার করতে বাধ্য হয় সরকার।

এদিকে আজ মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেকের বৈঠকে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাট না বসাতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরআগে সোমবার অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জানিয়েছিলেন, ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের ওপর ভ্যাট আরোপ করা হবে। তবে ছাত্রদের ওপর নয়।