স্বাস্থ্য পরীক্ষায় প্রশাসনিক তৎপরতা নাটকীয়ঃ ডা. সাইফুল

আজ সোমবার দুর্নীতি মামলায় কারাগারে থাকা সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করবে বিএনপিপন্হী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)। ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটিতে বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা নিয়ে ‘বিশিষ্ট চিকিৎসক সমাজ’ এর ব্যানারে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রশাসনিক তৎপরতা ‘লোক দেখানো’ বলে মনে মন্তব্য করেছেন অধ্যাপক ডা. সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘অনেকেরই বিশ্বাস বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রশাসনিক তৎপরতা এক রকম লোক দেখানো, হঠকারিতামূলক ও জনবিভ্রান্তি সৃষ্টির সুপরিকল্পিত প্রচেষ্টা। আর তা বুঝতে সাধারণ জনগণের কষ্ট হওয়ার কথা নয়’।

ডা. সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘বিষয়টি আরও পরিষ্কার মনে হয় যখন গত ৭ এপ্রিল কোনো ধরনের পূর্ব প্রস্তুতি ছাড়াই, হুট করে খালেদা জিয়াকে ইতোপূর্বে সরকারি চিকিৎসক দলের দেয়া মামুলি এক্স-রে ও রক্ত পরীক্ষার জন্য বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে আনা হয়’।

তিনি বলেন, ‘অভিযোগ উঠেছে এ সময়ে একজন বিশেষ শারীরিক চাহিদা সম্পন্ন রোগীর গাড়ি থেকে নামা ও সাধারণ চলাচলের উপযুক্ত ন্যূনতম সুবিধাও তার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়নি। এ ছাড়া তার সঙ্গে নিজের চার ব্যক্তিগত চিকিৎসকের সাক্ষাৎ করার সরকারি অনুমতি থাকলেও কার্যত সরকার ও প্রশাসনের লোকজন এ থেকে বঞ্চিত করেন’।

তিনি অভিযোগ করেন, ‘এ সময় খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা যথাস্থানে উপস্থিত থাকলেও তাদেরকে সৌজন্য বিনিময়ের বাইরে চিকিৎসা বিষয়ে কোনো শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার সুযোগ দেয়া হয়নি’।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যেউপস্থিত ছিলেন বিএনপিপন্থী চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) সভাপতি অধ্যাপক ডা. একেএম আজিজুল হক, মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, অধ্যাপক ডা. এ মান্নান মিঞাসহ প্রায় ২০জন চিকিৎসক।