বাসের চাপায় আহত আয়েশার চিকিৎসা নিশ্চিত করল হাইকোর্ট

রাজধানীর নিউ মার্কেট এলাকায় দুই বাসের চাপায় মেরুদণ্ড ভেঙে যাওয়া আয়েশা খাতুনের যথাযথ চিকিৎসা নিশ্চিত করতে সরকারের তিন সচিবকে হাইকোর্টের নির্দেশ। একই সঙ্গে এ ঘটনায় জড়িত থাকা বিকাশ পরিবহনের দুই বাস চালকের লাইসেন্স বাতিলেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরী ও বিচারপতি ইকবাল কবিরের হাই কোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেয়।

ট্রাফিক আইন ও বিধি কঠোরভাবে মেনে চলার ক্ষেত্রে বিকাশ পরিবহনের মালিক ও বাস চালকসহ গণপরিবহন, বিশেষ করে বাসের মালিক-চালকদের ব্যর্থতা ও নিষ্ক্রিয়তায় মূল্যবান জীবনহানী কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে রুলে। এছাড়া যাবতীয় খরচ বহন করে ক্ষতিগ্রস্তের যথাযথ চিকিৎসা, প্রয়োজনে ক্ষতিগ্রস্তকে দেশের বাইরে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা এবং উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না এবং মেট্রোপলিটন এলাকায় গণপরিবহনের গতিসীমা নির্ধারণ করে যথাযথ বিধি প্রণয়নের জন্য সংশ্লিষ্টদের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তাও জানতে চাওয়া হয়েছে রুলে।

স্বরাষ্ট্র, স্বাস্থ্য, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব, জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক, বিআরটিএ চেয়ারম্যান, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ট্রাফিক) ডেপুটি কমিশনার, বিকাশ পরিবহন এবং বিকাশ পরিবহনের মালিক-চালককে দুই সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

গত ৩ এপ্রিল ঢাকায় দুই বাসের রেষারেষিতে তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী রাজীব হোসেনের হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার দুইদিন পর ৫ এপ্রিল নিউ মার্কেট ফুটওভার ব্রিজে কাছে দুই বাসের চাপায় আয়েশা খাতুনের মেরুদণ্ড ভেঙে যায়।

রিট আবেদনে ঘটনার বর্ণনায় বলা হয়েছে, গত ৫ এপ্রিল সকাল নয়টার দিকে রাজধানীর নিউ মার্কেট এলাকা দিয়ে আয়েশা খাতুন তার ছয় বছর বয়সী মেয়েকে নিয়ে রিকশায় করে যাচ্ছিলেন।

রিকশাটি যখন নিউ মার্কেট ফুটওভার ব্রিজের কাছাকাছি পৌঁছায়, তখন বিকাশ পরিবহনের দুটি বাস পাল্লা দিয়ে চলছিল। তখন রিকশাটি দুই বাসের মধ্যে চাপা পড়ে। রিক্সাচালক ও আয়েশা খাতুনের মেয়ে অক্ষত থাকলেও আয়েশা খাতুনের মেরুদণ্ড ভঙে যায়। আয়েশা খাতুন বর্তমানে ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

পরদিন এ খবরটি কয়েকটি দৈনিকে আসে। সেসব খবর রোববার আদালতের নজরে অনেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মুজাহিদুল ইসলাম পাটওয়ারী ও সৈয়দ হাসান যোবাইর। পরে আদালত স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে রুলসহ এ আদেশ দেয়।

আইনজীবী মুজাহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, “দুই বাসের রেষারেষিতে তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীবের হাত হারানোর ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে নিউ মার্কেট এলাকায় দুই বাসের চাপায় পড়ে গৃহবধূ আয়েশা খাতুনের মেরুদণ্ড ভেঙ্গে যায়।

“এ বিষয়টি আদালতের নজরে আনলে আদালত তার যাবতীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে স্বাস্থ্য, স্বরাষ্ট্র ও সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সচিবকে নির্দেশ দিয়েছে। আহত আয়েশা খাতুনের চিকিৎসার যাবতীয় খরচ বিকাশ পরিবহনকে বহন করতে বলেছে আদালত।”

মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, আহতের চিকিৎসায় কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা জানিয়ে জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে আগামী ৬ মের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

আগামী ৮ মে এ বিষয়ে পরবর্তী আদেশের জন্য রাখা হয়েছে বলে জানান এই আইনজীবী।