রোহিঙ্গা মুসলমানদের আশ্রয় দিতে চান ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট

গত বৃহস্পতিবার ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতের্তে প্রেসিডেন্সিয়াল প্যালেসে বলেছেন, তিনি রোহিঙ্গাদের সঙ্গে সমব্যথী। রোহিঙ্গা মুসলমানদের আশ্রয় দিতে প্রস্তুতি ঘোষণা করেছেন তিনি। রদ্রিগো দুতের্তে আরও বলেন, “আমি তাদের গ্রহণ করতে চাই। আমি তাদের সাহায্য করবো। কিন্তু আমাদের উচিত তাদেরকে ইউরোপের সঙ্গে ভাগাভাগি করে নেয়া।”

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সমালোচান করে তিনি বলেন, তারা এখনও রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান করতে পারে নি। মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে যা ঘটেছে, সেটা গণহত্যা। আমি মনে করি, তা গণহত্যার চেয়েও বেশি। ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্টের এই ভাষণ টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হয় এবং পরে তার দপ্তর থেকে ভাষণের একটি লিখিত কপি ইস্যু করা হয়।

এদিকে, ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্টের বক্তব্যকে প্রত্যাখ্যান কেরছে মিয়ানমার। দেশটির সরকারের মুখপাত্র জ হতে বলেছেন, দুতার্তের বক্তব্যে ঘটনার প্রকৃত চিত্র উঠে আসেনি। তার দাবি, সেখানে কোনো গণহত্যার ঘটনা ঘটে নি।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারে রাখাইনে দেশটির সেনাবাহিনী নতুনকরে হত্যা-নির্যাতন শুরু করলে জীবন বাঁচাতে সেখান থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা। এ সময় হাজার হাজার মুসলমান প্রাণ হারান।