দু’টি ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার মোড়ক উন্মোচন করল রাশিয়া

রাশিয়ার সেনাবাহিনী ক্রিমিয়া প্রজাতন্ত্রে অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০-এর মোড়ক উন্মোচন করেছে। গতকাল (শনিবার) রাশিয়ার বিমান প্রতিরক্ষা দিবসকে সামনে রেখে এ পদক্ষেপ নেয়া হয় বলে রুশ বার্তা সংস্থা ইজভেস্তিয়া খবর দিয়েছে। এটি জানিয়েছে, ক্রিমিয়ার বন্দরনগরী সেভাস্তোপোলে আগে থেকে মোতায়েন করা দু’টি প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ‘এস-৪০০’ এবং ‘প্যান্টসির-এস১’র মোড়ক শনিবার উন্মোচন করা হয়। চলতি বছরের গোড়ার দিকে ক্রিমিয়া প্রজাতন্ত্রের ইউক্রেন সীমান্তে এস-৪০০ মোতায়েন করা হয়।

রাশিয়ার সর্বাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা হিসেবে পরিচিত এস-৪০০ চারদিকের ৪০০ কিলোমিটার পর্যন্ত দূরত্বের যেকোনো ধরনের বিমান শনাক্ত করে তা ধ্বংস করে দিতে সক্ষম। সেইসঙ্গে শত্রুপক্ষের নিক্ষিপ্ত যেকোনো ক্ষেপণাস্ত্রকেও ৬০ কিলোমিটার দূরে থাকতেই ধ্বংস করে দিতে পারে এ ব্যবস্থা। অতি সম্প্রতি রাশিয়া চীনের কাছে এস-৪০০ হস্তান্তর করেছে। এ ছাড়া, ভারত ও তুরস্ক রাশিয়ার কাছ থেকে এ ব্যবস্থা কেনার চুক্তি করেছে।

এ ছাড়াও, প্যান্টসির-এস১ হচ্ছে রাশিয়ার আরেকটি মধ্যমপাল্লার ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা যা ভ্রাম্যমান প্ল্যাটফর্ম থেকে নিক্ষেপ করা সম্ভব।

২০১৪ সালের গোড়ার দিকে ক্রিমিয়া প্রজাতন্ত্রে অনুষ্ঠিত এক গণভোটের জের ধরে এটিকে রুশ ফেডারেশনে অন্তর্ভুক্ত করেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তার আগ পর্যন্ত প্রজাতন্ত্রটি ইউক্রেনের অংশ ছিল।

রুশ ফেডারেশনে ক্রিমিয়ার অন্তর্ভুক্তির জের ধরে আমেরিকা ও ইউরোপ রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এ ছাড়া, ওই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে পাশ্চাত্যের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্কে যে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয় তা আজো পুরোপুরি দূর হয়নি।