ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে মা মারধরের শিকার

রাজধানীর ইসলামবাগে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছেলে সুজনকে (১৭) বাঁচাতে গিয়ে চাঁদাবাজদের মারধরের শিকার হলেন মা নাজমা বেগম (৩০)। রোববার বেলা ১১টার দিকে পশ্চিম ইসলামবাগের অালীরঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা অাহত নাজমা বেগমকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে অাসে। অাহত নাজমার গ্রামের বাড়ি বগুড়ার ধনুটে।

অাহত নাজমা এলাকায় দোকানে দোকানে ভাত বিক্রি করেন। সেই সঙ্গে নিজ বাসায় কয়েকজন যুবককেও টাকার বিনিময়ে তিনি বেলা ভাত খাওয়ান। নাজমা জানান, এলাকার করম অালী মাতবরের বড় ছেলে রাসেল বেশ কয়েকদিন ধরে তার কাছে চাঁদা দাবি করে। কিন্তুু টাকা না দেয়ায় বিভিন্নভাবে অামাকে প্রতিহতের চেষ্টা করে।

তিনি অারও জানান, সকালে ছেলেকে তার বন্ধু মিরু মোবাইল চুরি করে ফাঁসাতে চায়। এতে সুজন প্রতিবাদ করলে রাসেল, রজ্জব, ইউনুছসহ অারও ৪/৫ জন মিলে ছেলেকে মারধর করে। এতে নাজমা বাধা দিলে তাকেও অকথ্যভাষায় গালিগালাজ এবং লাঠি দিয়ে ব্যাপক মারধর করে। এতে তিনি গুরুত্বর অসুস্থ হয়ে পড়েন।

নাজমার খালা রিনা অাক্তার জানান, এ ঘটনায় তারা চকবাজার থানায় অভিযোগ দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ঢামেক ক্যাম্প পুলিশের উপ-পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, এখানে অানার পর ওই নারীকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।