বাংলাদেশে ধনী ১০ জেলার মধ্যে ফরিদপুর ৫ম

বাংলাদেশের শীর্ষ ধনী ১০ জেলার মধ্যে ফরিদপুর ৫ম স্থানে রয়েছে। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সর্বশেষ খানার আয় ও ব্যয় নির্ধারণ জরিপ ২০১৭-তে এই তথ্য পাওয়া গেছে। সাম্প্রতি এই প্রতিবেদন আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রকাশ করা হয়। সেখানে প্রথমবারের মতো জেলাওয়ারি ধনী-দরিদ্র্য পরিস্থিতি চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।

সবচেয়ে ভালো আছেন নারায়ণগঞ্জের মানুষ। এই জেলার প্রতি ১০০ জনে গড়ে ২ দশমিক ৬ জন মানুষ গরিব। বাকিরা সবাই দারিদ্র্যসীমার উপরে বাস করেন।

দারিদ্র্য কম এমন ১০টি জেলার ৭টিই ঢাকা বিভাগের বাকি ছয়টি জেলার মধ্যে দারিদ্র্যের হার মুন্সীগঞ্জ ৩ দশমিক ১শতাংশ। মাদারীপুর ৩ দশমিক ৭শতাংশ। গাজীপুরে ৬দশমিক ৯শতাংশ। ফরিদপুরে ৭দশমিক ৭শতাংশ নিয়ে ৫ম স্থানে রয়েছে। ঢাকায় ১০শতাংশ ও নরসিংদীতে সাড়ে ১০ শতাংশ। সে হিসেবে মুন্সীগঞ্জ রয়েছে ২য় স্থানে।

শীর্ষ ১০ তালিকায় থাকা অন্য তিনটি জেলার মধ্যে দারিদ্র্যের হার ব্রাক্ষনবাড়ীয়া ১০ দশমিক ৩শতাংশ। মৌলভীবাজারে ১১শতাংশ ও সিলেট ১৩ শতাংশ।

বিবিএসের জরিপ অনুযায়ী দেশের সবচেয়ে দারিদ্র্য প্রবণ এলাকা উত্তরবঙ্গ সবচেয়ে বেশী গরিব মানুষ থাকে রংপুর বিভাগে। দারিদ্র্যের হার সবচেয়ে বেশি এমন ১০টি জেলার মধ্যে ৫টিই রংপুর বিভাগে। কুড়িগ্রাম ছাড়া এই তালিকায় আছে রংপুর, দিনাজপুর, গাইবান্ধা ও লালমনিরহাট।

এর মধ্যে দারিদ্র্যের হার দিনাজপুরে ৬৪দশমিক ৩শতাংশ, গাইবান্ধায় ৪৬ দশমিক ৭শতাংশ, রংপুরে ৪৩দশমিক ৮শতাংশ ও লালমনিরহাট ৪২ শতাংশ।

শীর্ষ তালিকায় দেখা গেছে দেশের আরেকটি দারিদ্র্যেপ্রবণ পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবন ও খাগড়াছড়ি জেলা আছে। এই তালিকায় থাকা অন্য তিনটি জেলা হলো জামালপুর কিশোরগঞ্জ ও মাগুরা।

কুড়িগ্রাম জেলার প্রতিটি ১০০ জন আধিবাসীর মধ্য প্রাই ৭১জনই গরিব। তাঁরা নিজেদের পরিবারে সদস্যদের পর্যাপ্ত খাবার কিনতে পারেন না। আবার দৈনন্দিন চাহিদা যেমন স্বাস্থ্য শিক্ষা বস্ত্র এসবেও খরচ করার সুযোগ কম। কুড়িগ্রাম জেলায় সবচেয়ে বেশি গরিব মানুষ। এই জেলার দারিদ্র্যের হার ৭০ দশমিক ৮শতাংশ। জেলার কোথাও কোথাও দারিদ্র্যের হার ৭৭ দশমিক ছাড়িয়ে গেছে। তবে কোথাও ৬৪ শতাংশের নিচে দারিদ্র্যের হার নেই।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে জরিপটির প্রকল্প পরিচালক দীপঙ্কর রায় সাংবাদিকদের বলেন, এবারই প্রথম বারের মতো জেলাওয়ারি দারিদ্র্য পরিস্থিতি কেমন তা তুলে ধরা হয়েছে। আমরা দেখতে চেয়েছি আঞ্চলিক পর্যায়ে দারিদ্র্য বা দারিদ্র্যের পকেট আছে কিনা। দেখা গেছে কিছু অঞ্চল বেশি দরিদ্র।

তিনি আরো জানান, এই জরিপে পাওয়া তথ্যের ভিক্তিতে বেশি দরিদ্র অঞ্চলগুলোয় সরকার নীতিসহ বিভিন্ন কর্মসুচি নিতে পারে। খানার আয়ও ব্যয় নির্ধারণ জরিপ ২০১৬ অনুযায়ী গত ছয় বছরে সার্বিক দারিদ্র্যের হার বাড়ে ৩১শতাংশ থেকে কমে ২৪ দশমিক ৩শতাংশ হয়েছে।

অতি দারিদ্র্যের হারও কমেছে। ২০১৬ সালে অতি দারিদ্র্যের হাট ছিলো ১২ দশমিক ৯ শতাংশ। বিবিএসের তথ্যমতে বর্তমানে দেশের জনসংখ্যা ১৬ কোটি ২০ লক্ষ। সেই হিসাবে দেশে ৩ কোটি ৯৩ লাক্ষ দরিদ্র মানুষ আছে। হত দরিদ্রের সংখ্যা ২ কোটি ৮ লক্ষ।

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি