কোচিং সেন্টারে শিশু ধর্ষণ, থানায় মা’র অভিযোগ

ঝিনাইদহের প্রগতি কোচিং সেন্টারের প্লেগ্রুপের এক শিশু ছাত্রকে পালাক্রমে বলৎকার করা হলে ঝিনাইদহ সদর থানায় অবশেষে মামলা হয়েছে। শিশুটি অসুস্থ অবস্থায় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শিশুটির মা সেলিনা খাতুন লিখিত অভিযোগে জানিয়েছেন কয়েকদিন আগে প্রগতি কোচিং সেন্টারের সাদ্দাম হোসেনসহ দুই শিক্ষক তার শিশু সন্তানকে বলৎকার করে। এরপর ওই কোচিং সেন্টারের ছাত্র আলামিন, অংকন, রাব্বি ও বিপ্লব পালাক্রমে বলৎকার করে। এতে সে রক্তাক্ত ভাবে জখম হয়।

এরপর প্রগতি কোচিং সেন্টার কর্তৃপক্ষের উদ্যোগেই ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালেই চিকিৎসা চলছে শিশুটির। বিষয়টি নিয়ে কথা হলে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ অপুর্ব কুমার ঘটনার সত্যতা স্বীকারে করেন। শিশুটির মা সেলিনা জানান, প্রগতি কোচিং সেন্টারের অধ্যক্ষ বিষয়টি মিটিয়ে ফেলার জন্য চাপ ব্যাপক চাপ দিচ্ছে। তাছাড়া প্রগতি কোচিং সেন্টার কর্তৃপক্ষ হাসপাতালের নার্স ও আয়াদের সহযোগিতায় ও তাদের মাধ্যমে কৌশলে ভুয়া ছাড়পত্র দিয়ে আমাদের হাসপাতাল থেকে থেকে বের করে দেয়ার জোর পায়তারা করছে।

তবে থানা পুলিশ বিষয়টি আগে থেকেই জানেন বলে এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান। শিশুটির মায়ের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে ঝিনাইদহ সদর থানায় মামলা হয়েছে বলে জানান ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমদাদ হক শেখ।

মোঃ জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ সংবাদাতা