পাঁচ দিন নিখোঁজের পর রথীশ চন্দ্র ভৌমিকের লাশ উদ্ধার

পাঁচ দিন নিখোঁজের পর রংপুর স্পেশাল জজ আদালতের পিপি, জেলা আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক রথীশ চন্দ্র ভৌমিকের লাশ উদ্ধার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন। তার আগে তার রক্তমাখা শার্ট উদ্ধার করা হয়েছে।

র‍্যাব-১৩ এর আরমিন রাব্বি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘মঙ্গলবার মধ্যরাতে রথীশ চন্দ্রের বসতবাড়ি থেকে মাত্র ৫০ গজ দূরে তাজহাট মোল্লাপাড়া জামে মসজিদের কাছের একটি নির্মাণাধীন বাড়ির মেঝে খুঁড়ে তাঁর লাশটি উত্তোলন করে র‍্যাব সদস্যরা। পরে পরিবারের সদস্যরা এসে লাশটি সনাক্ত করেন।’

এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় র‍্যাব সদস্যরা রথীশ চন্দ্রের স্ত্রী স্নিগ্ধা ভৌমিক ও মেয়ে অদিতি ভৌমিককে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদ করে। তারপরই লাশের সন্ধান মেলে বলে জানান এ কর্মকর্তা।

গত শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে নিজ বাড়ি থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর আর ফিরে আসেননি রংপুরের এই রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব।

রথীশ চন্দ্র ভৌমিক রংপুরে জাপানি নাগরিক হোশি কোনিও ও খাদেম রহমত আলী হত্যা মামলায় সরকারপক্ষের কৌঁসুলি ছিলেন। এ মামলা দুটিতে ১৮ জেএমবি সদস্যের ফাঁসির রায় দেন আদালত। এ ছাড়া জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজাহারুল ইসলামের বিরুদ্ধে যুদ্ধপরাধী মামলার অন্যতম সাক্ষী ছিলেন তিনি।