অবশেষে কুড়িলাপবিস এর ৫ কর্মকর্তা-কর্মচারী সাময়িক বরখাস্ত

দীর্ঘ দিনের দুর্নীতি আর কর্তব্যে অবহেলা ও বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে কুড়িগ্রাম-লালমনিরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির (কুড়িলাপবিস) জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী মোঃ আলী হোসেনসহ পাঁচ কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে বরখাস্ত করেছে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড।

আনীত অভিযোগ ও দীর্ঘদিন ধরে গণমাধ্যমে সংবাদগুলো খতিয়ে দেখতে উচ্চ পর্যায়ের তিন সদস্যের একটি তদন্ত দল গঠন করা হয়েছে। বরখাস্ত অপর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা হলেন নাগেশ্বরী অফিসের এজিএম খোরশেদ আলম, ডিজিএম মোঃ আসাদুজ্জামান, ভুরুঙ্গামারী অফিসের এজিএম বজলুল কামাল ও নাগেশ্বরী অফিসের লাইন টেকনিশিয়ান আমজাদ হোসেন।

কুড়িগ্রাম-লালমনিরহাট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সূত্র জানায়, পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের সদস্য মাহবুবুল বাশারের নেতৃত্বে একটি তদন্ত দল বিভিন্ন অভিযোগ খতিয়ে দেখছে। কমিটিতে একজন নির্বাহী পরিচালক ও একজন পরিচালক রয়েছেন।

উল্লেখ্য, কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী, ভুরুঙ্গামারী, ফুলবাড়ীসহ বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার ক্ষেত্রে দুর্নীতি ও গ্রাহক হয়রানির অভিযোগ অনেক পুরোনো। এ নিয়ে গণমাধ্যমে গত তিন বছর থেকে কয়েক দফায় বেশ কয়েক কলাম জুড়ে সংবাদ প্রচার হয়। কিন্তু, ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় কিছু নেতার যোগসাজশে ঘুষের রমরমা ব্যবসা করে আসছিল তারা।

মোঃ মনিরুজ্জামান, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি