ধর্ষককে তুলে এনে পিটিয়ে হত্যা

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির উপকণ্ঠে ৮ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষককে বাড়ি থেকে তুলে এনে পিটিয়ে হত্যা করেছে উত্তেজিত জনতা। রোববার দেশটির পুলিশ বলছে, ধর্ষককে পিটিয়ে হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রাজধানী নয়াদিল্লি থেকে ২০ কিলোমিটার দূরের গজিয়াবাদ জেলায় ওই শিশুর নিপীড়নকারী হিসেবে জিতেন্দ্র নামের এক তরুণকে সনাক্ত করেন স্থানীয়রা। পরে তারা ওই তরুণকে তার বাড়ি থেকে তুলে এনে পিটিয়ে হত্যা করে উত্তেজিত জনতা। গজিয়াবাদ জেলা পুলিশ সুপার অরবিন্দ কুমার মারিয়া বলেন, ওই তরুণের বয়স ৩৫ বছর।

‘‘পিটিয়ে হত্যার দায়ে আমরা দু’জনকে গ্রেফতার করেছি। এদের মধ্যে একজন ধর্ষণের শিকার শিশুর পরিবারের সদস্য এবং অন্যজন তাদের প্রতিবেশি।”

তিনি বলেন, তদন্তের অংশ হিসেবে যৌন নিপীড়নের এ ঘটনায় অনুসন্ধান শুরু করেছে পুলিশ। ভারতে প্রায়ই এ ধরনের ঘটনা ঘটে। উত্তেজিত জনতা ধর্ষণে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের নগ্ন করে রাস্তায় ঘোরানোর মতো সাজাও দেয়। আদালতে ধর্ষণের বিচারে দীর্ঘ সময় লাগতে পারে এমন শঙ্কায় লোকজন আইন নিজেদের হাতে তুলে নেয়।

গত ফেব্রুয়ারিতে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ৫ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে থানা থেকে দুই অভিযুক্ত ছিনিয়ে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে স্থানীয়রা। এর আগে ২০১৫ সালে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের একটি থানায় হামলা চালিয়ে এক ধর্ষককে খুন করে উত্তেজিত জনতা।