অবশেষে সপ্ন পূরণ হল  ব্রিটিশ নাগরিক লুসি হেলেনের

বরিশালে অবস্থানরত ব্রিটিশ নাগরিক লুসি হেলেন ফ্রান্সিস হল্ট বাংলাদেশের নাগরিকত্ব লাভ করলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩১ মার্চ বিকেলে তার হাতে নাগরিকত্ব সনদ তুলে দেন। এ সময় মুক্তিযুদ্ধে পরোক্ষ অবদান আর বাংলাদেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করায় লুসি হল্টকে ধন্যবাদ জানান শেখ হাসিনা।

জানা যায়, ৫৭ বছর ধরে বাংলাদেশে থাকা ৮৭ বছর বয়সী লুসি ১৯৩০ সালের ১৬ ডিসেম্বর যুক্তরাজ্যের সেন্ট হ্যালেন্সে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম জন হল্ট ও মা ফ্রান্সিস হল্ট।

লুসি হল্ট মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় যশোরের ফাতেমা হাসপাতালে যুদ্ধাহতদের সেবা করেন। বিদেশে চিঠি লিখে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে জনমত গড়ে তোলেন। বাংলাদেশে থাকা লুসির দাবি ছিলো প্রতিবছর ভিসা ফি মুক্ত করা ও বাংলাদেশের নাগরিকত্ব। তার দুটি চাওয়াই পূরণ করেছে বাংলাদেশ সরকার।

লুসি হল্ট ১৯৬০ সালে প্রথম বাংলাদেশে আসেন। বরিশাল অক্সফোর্ড মিশনে যোগ দিয়ে মানবসেবায় নিযুক্ত হন। স্বাধীনতার পর এ দেশেই থেকে যান। ২০০৪ সালে অবসরে যাওয়া লুসি এখনও বরিশালে দুস্থ শিশুদের মানসিক বিকাশ ও ইংরেজি শিক্ষা দিচ্ছেন। তার আশা, মৃত্যুর পর তাকে যেন বরিশালেই সমাধিস্থ করা হয়।