হংকংকে ৬-০ গোলে হারিয়ে বাংলার বাঘিনীদের শিরোপা জয়

প্রথম ম্যাচেই র‍্যাংকিংয়ের উপরের দল মালয়েশিয়াকে ১০-১ গোলে উড়িয়ে দেয় বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল দল। পরের ম্যাচেও ধারাবাহিকতা ধরে রাখে মারিয়া বাহিনী। শক্তিশালী ইরানকে বিধ্বস্ত করে দেয় ৮-১ গোলে। আর আজ তৃতীয় ম্যাচে স্বাগতিক হংকংকে ৬-০ গোলে হারিয়ে  শিরোপা জয় লাভ করেছে বাংলার বাঘিনীরা। আজ হ্যাট্রিক করেছেন তহুরা খাতুন। সাজেদা খাতুন, শামসুন্নাহার, আনুচি মোগিনি একটি করে গোল করেন।

রোববার সিউ সাই ওয়ান স্পোর্টস গ্রাউন্ডে ম্যাচের প্রথম দিকেই আক্রমণে কুপোকাত হয় স্বাগতিকরা। চার মিনিটে গোল করে জাত চেনান তহুরা। ম্যাচের ৩৯ মিনিটে গোল দিয়ে দলকে আরও এগিয়ে দেন সাজেদা। পরের মিনিটে নিজের দ্বিতীয় ও দলের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন তহুরা। প্রথমার্ধ ৩-০ গোলে শেষ হয়

দ্বিতীয়ার্ধে আরো তিন গোল করে বাংলাদেশ দল। ৬৭ মিনিটে দলের চতুর্থ গোলটি করেন শামসুন্নাহার। ৭২ মিনিটে ফের গোল। এবারের স্কোরার আনুচিন মোগিনি।দুই মিনিট পর হকংয়ের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠোকেন তহুরা। ব্যক্তিগত এক হালি গোল দেন। শেষ পর্যন্ত ৬-০ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে চ্যাম্পিনরা।

এটি নিয়ে নারী ফুটবলে টানা দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক ট্রফি জিতলো বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ দল। রেকর্ড গড়ে তিন ম্যাচে ২৪ গোল করে এই সাফল্য এসেছে লাল-সবুজদের। নারী বয়সভিত্তিক আন্তর্জাতিক ফুটবলে গত ডিসেম্বরে এই দলটাই অনূর্ধ্ব-১৫ সাফে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

২০১৪ ও ২০১৬ সালে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ নারীদের সাউথ-সেন্ট্রাল জোনের এ দুইবার চ্যাম্পিয়ন হয় গোলাম রাব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। ২০১৪ সালে নেপাল থেকে এবং ২০১৬ সালে তাজিকিস্তান থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে দেশে ফেরে বাংলাদেশের অদম্য কিশোরীরা।