‘সারা দেশে ১৫ লাখ ৫৮ হাজার প্রতিবন্ধী চিহ্নিত’

সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৫ লাখ ৫৮ হাজার ৫৪৩ জন বিভিন্ন ধরনের প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে চিহ্নিত করা হয়েছে। প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের তথ্যভাণ্ডার তৈরির কাজ চলমান বলে জানিয়েছেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। সোমবার বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উপলক্ষে আজ সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে সোমবার থেকে তিন দিনব্যাপী সারা দেশে নীল বাতি জ্বালানো হবে বলেও জানিয়েছেন রাশেদ খান মেনন। তিনি বলেন, ‘অটিজমের প্রতীকী রং হচ্ছে নীল।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আগামী তিনদিন বঙ্গভবন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, সচিবালয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় নীল বাতি প্রজ্জ্বলন করা হবে। পুরো দেশেই এটা করা হবে। সমাজ সেবা অধিদফতর এবং জাতীয় প্রতিবন্ধী ফাউন্ডেশন ১৫ দিন ধরে নীল বাতি প্রজ্জ্বলন করবে। প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল (সোমবার) নীল বাতি প্রজ্জ্বলন করবেন।’ তিনি বলেন, ‘অটিজম কোনো ছোঁয়াচে রোগ নয়, এটি মানুষের হরমোনজনিত সমস্যার বহিঃপ্রকাশ।’

‘ডিজঅ্যাবিলিটি ইনফরমেশন সিস্টেম’ নামে সফটওয়্যারের মাধ্যমে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলা হচ্ছে জানিয়ে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী বলেন, ‘ডাটাবেইজে এ পর্যন্ত শনাক্তকৃত প্রতিবন্ধী ব্যক্তির সংখ্যা ১৫ লাখ ৫৮ হাজার ৫৪৩।’

‘এরমধ্যে অটিজম ৪৪ হাজার ৬৭৫, শারীরিক প্রতিবন্ধী ৬ লাখ ৯১ হাজার ৪৮৩ , দীর্ঘস্থায়ী মানসিক অসুস্থতাজনিত প্রতিবন্ধী ৫২ হাজার ৮৪৬, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ২ লাখ ১৪ হাজার ৯৫৪, বাক প্রতিবন্ধী এক লাখ ১৪ হাজার ৪৮৯, বুদ্ধি প্রতিবন্ধী এক লাখ ২২ হাজার ৩০৮, শ্রবণ প্রতিবন্ধী ৪৫ হাজার ৬৪৬ , শ্রবণ-দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ৬ হাজার ৫১৫, সেরিপালসি ৬৯ হাজার ৯৩৪, বহুমাত্রিক প্রতিবন্ধী ১৭ হাজার ৯৭২, ডাউন সিনড্রোম ৩ হাজার ৫৫ এবং অন্যান্য প্রতিবন্ধীর সংখ্যা ১২ হাজার ৯১১।’ দেশের জনসংখ্যার ১০ শতাংশ প্রতিবন্ধী জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘প্রতিবন্ধীদের ডাটাবেইজ চলমান প্রক্রিয়া, এটা চলতেই থাকবে।’

সরকার ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন ২০১৩’ এবং ‘নিউরো ডেভলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী সুরক্ষা ট্রাস্ট আইন ২০১৩’ করেছে জানিয়ে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি বলেন, ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার এখন আইন দ্বারা স্বীকৃত।’

অটিজম ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য তিনটি ক্যাটাগরিতে তিনজন করে মোট ৯ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়েছে বলে জানান সমাজকল্যাণমন্ত্রী। সংবাদ সম্মেলনে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ ও সমাজকল্যাণ সচিব মো. জিল্লার রহমান উপস্থিত ছিলেন।