মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরে আসা শেহরিন এখন শঙ্কামুক্ত

দেশে ফিরেছে নেপালের কাঠমান্ডুতে বিমান বিধ্বস্তে অাহত শেহরিন আহমেদ। ঢাকায় অানার পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের আইসিইউতে রাখা হয়েছে তাকে। সেখানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে চিকিৎসা চলছে। তবে শেহরিন এখন শারীরিক দিক থেকে ঝুঁকিমুক্ত বলে জানিয়েছেন ঢামেকের বার্ন ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, শেহরিনের দু’পায়ে ফ্র্যাকচার (ক্ষত) হয়েছে। তার শরীরের ৫ শতাংশ ডিপ বার্ন হয়েছে। তবে তার শারীরিক অবস্থা বর্তমানে স্টেবল (স্থিতিশীল) রয়েছে।

তিনি অারও বলেন, তার চিকিৎসা শুরু হয়েছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। এরপর বলা যাবে কি ধরনের চিকিৎসা প্রয়োজন। তবে ধারণা করা হচ্ছে একটা সার্জারি অপারেশন এবং একট স্ক্রীন অপারেশন প্রয়োজন হতে পারে। এছাড়াও প্রয়োজনে মেডিকেল টিম গঠন করা হবে।

অাহত শেহরিনের বড় ভাই ডা. স্বর্পরাজ অাহম্মেদ জানান, ঘটনার পরের দিন তিনি নেপালের কাঠমান্ডু যান এবং বোনের চিকিৎসায় সার্বিকভাবে তদারকি করেন। পরে তিনি দেখেন সেখানে তার বোনের জন্য উপযুক্ত চিকিৎসা পাওয়া যাচ্ছে না। তাই বোনকে তাড়াতাড়ি দেশে অানার ব্যবস্থা করেন তিনি।

তিনি অারও বলেন, তার বোন বিমানের পেছনের অংশে টয়লেটের পাশে ছিলেন। সেখান থেকে সেনাবাহিনী তাকে বিমান কেটে বের করেন। এ ঘটনায় দু’দেশের সরকারসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রসংশা করেন তিনি।

ব্রিফিংয়ে অারও উপস্থিত ছিলেন- ঢামেকের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ফয়েজ অাহম্মেদ, অধ্যাপক ডা. সাজ্জাদ খন্দকারসহ প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here