একটি করে স্যাম্পল নিয়ে দেশে ফিরবে বিশেষজ্ঞ দল

নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের ডিএনএ সংগ্রহের পর দু’টি করে স্যাম্পল সংগ্রহ করা হয়েছে। এইগুলো নিয়ে স্বজনদের স্যাম্পলের সঙ্গে মিলিয়ে শনাক্ত করা হবে। প্রত্যেকের দু’টি করে স্যাম্পল নিয়ে একটি নেপালে দিয়ে আরেকটি নিয়ে দেশে ফিরবে বাংলাদেশ থেকে যাওয়া বিশেষজ্ঞ দল। বৃহস্পতিবার নেপালে প্রেসব্রিফিংয়ের সময় সফররত বাংলাদেশ মেডিক্যাল টিমের সদস্য ও ঢামেকের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক সোহেল মাহমুদ এই তথ্য জানান।

সোহেল মাহমুদ বলেন, ‘আমাদের স্বার্থে শনাক্তকরণের কাজ করবো। দু’টি স্যাম্পল কালেক্ট করবো। আমরা আমাদের মতো, তারা তাদের মতো করবে।’

অনেকের স্বজন নেপালে নেই, তাদেরটা কীভাবে শনাক্ত করবেন, এমন প্রশ্নের জবাবে সোহেল মাহমুদ বলেন, ‘দু’টি পদ্ধতি আছে। যাদের স্বজন নেই, তাদের ডিএনএ দেশে নিয়ে যাব। সেখানে প্রোফাইলিং করবো। যাদের স্বজন আছে, দেশে ফিরে ডিএনএ দিয়ে যাবে।’  এজন্য কতদিন সময় লাগবে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশের পরিপ্রেক্ষিতে বলবো, স্যাম্পল সংগ্রহ করে যখন দেশে চলে যাবো, তখন স্বজনরা এসে স্যাম্পল দিতে হবে। দু’টি স্যাম্পল যখন কালেক্ট করতে পারবো, তখন ৮ থেকে ১০দিন লাগবে। আরও কিছু প্রক্রিয়া আছে। ব্লাড হলে সহজ হয়। আমি এখান থেকে ব্লাড পাবো না। এখান থেকে দাঁত ও হাড় নিতে পারবো।’

নেপালের লোকজন বাংলাদেশে চিকিৎসায় লেখাপড়া করে উল্লেখ করে সোহেল মাহমুদ বলেন, ‘সেক্ষেত্রে আমাদের মনে হয়েছে আমরা তাদের চেয়ে একটু উন্নত অবস্থায় আছি। এটা আমরা মনে করছি, এখনও প্র্যাকটিক্যালি দেখিনি। আমাদের ওখানে নম্বর ওয়ান বার্ন ইউনিট আছে। আহতদের দেখে যদি মনে করি, সেখানে নিয়ে গিয়ে ভালো সেবা দেওয়া সম্ভব, তাহলে আমি চিকিৎসকদের বলবো আমাদের সেই অনুমতি দিতে।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘শনাক্ত হওয়া লাশ কাল-পরশুই স্বজনদের বুঝিয়ে দেওয়া হবে।’

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here