শ্রীদেবীর মৃত্যুর ব্যাখ্যা করতে গিয়েই বাথটবে সাংবাদিক!

গতও শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেত্রী শ্রীদেবী। শ্রীদেবীর মৃত্যুর খবর সামনে আসার পর থেকে সবাই জানে অভিনেত্রী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। কিন্তু ময়নাতদন্তের পর জানা গেল হৃদরোগ নয়, বাথটাবের পানিতে ডুবেই মৃত্যু হয়েছে অভিনেত্রীর। প্রিয় তারকার মৃত্যু নিয়ে যখন শোকে পাথর বলিউড, তখন শ্রীদেবীর মৃত্যুর ব্যাখ্যা করতে গিয়েই বাথটবে উঠে নেটদুনিয়ার হাসির খোরাক হলেন এক তেলুগু সাংবাদিক।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, বাথটবে পানিতে ডুবে শ্রীদেবীর মৃত্যু নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠতে থাকে। কীভাবে তিনি সংজ্ঞাহীন হয়ে গেলেন, কীভাবে বাথটাবে শ্রীদেবীর উচ্চতার কেউ ডুবে যেতে পারে? এমন নানা প্রশ্ন। এসব প্রশ্নের উত্তর খোঁজার জন্য উঠে পড়ে লাগে সংবাদ মাধ্যমগুলো। কোথাও ক্রোমায় (গ্রাফিক্সের মাধ্যমে) কাল্পনিক বাথটবের উপর ভাসিয়ে দেওয়া শ্রীদেবীর শুয়ে থাকা অবস্থার ছবি। কোথাও আবার রীতিমতো নাট্য রূপায়ণে পুরো ঘটনা তুলে ধরা হয়। এর মধ্যেই অবাক হওয়ার মতো কাজটি করেন ওই তেলুগু সাংবাদিক। একটি বাথটবের উপর উঠে একেবারে শুয়ে পড়ে তিনি ব্যাখ্যা করতে থাকেন কীভাবে শ্রীদেবীর মত্যু হয়েছিল। সেই ভিডিও ইন্টারনেটে ভাইরাল হওয়ার পর থেকে হাসির খোরাক হচ্ছেন ওই সাংবাদিক।

একই সঙ্গে যেভাবে শ্রীদেবীর মত্যু মিডিয়ায় উঠে এসেছে তাতে অসন্তুষ্ট মিডিয়ারই একাংশ বলেও দাবি করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন। নেটদুনিয়ায় নিন্দার পাশাপাশি ক্ষুব্ধ হয়েছে দেশটির প্রথম সারির সংবাদিকরা। তারা এই ধরনের সাংবাদিকতাকে হীন আখ্যা দিয়ে বলেছেন, এ হল সংবাদেরই মৃত্যু। সাংবাদিকতার এই ধরনে তারা যে বিব্রত তা জানাতেও ভোলেননি।