দেশে ফিরল শ্রীদেবীর মরদেহ, বিমানবন্দরে অবতরণ করেছে বিমান

আজ রাতেই মুম্বইয়ে ফিরছে শ্রীদেবীর দেহ। প্রাইভেট ফ্লাইটে নিয়ে আসা হচ্ছে দেহ। রাত ১০.৩০ টা  নাগাদ মুম্বই ফিরতে পারে শ্রীদেবীর দেহ। মৃতদেহ রাখা থাকবে ভাগ্য বাংলোয়। কাল দুপুর ১ টায় শ্রীদেবীর শেষকৃত্যের সম্ভাবনা।

চারদিনের মাথায় অবশেষে ফিরছে শ্রীদেবীর দেহ। ভারতে দেহ আনার ছাড়পত্র দিল দুবাই পুলিশ। প্রয়াত অভিনেত্রীর দেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। বিশেষ বিমানে শ্রীদেবীর দেহ নিয়ে আসা হল দেশে। শ্রীদেবীর স্বামী বনি কপূরকে ক্লিনশিট দিল দুবাই পুলিশ। তাঁর পাসপোর্ট ফেরত দেওয়া হয়েছে। দুবাইয়ের মর্গে যান কপূর পরিবার। কপূর পরিবারের সঙ্গে মর্গে যান কনস্যুলেটের অফিসাররা। বনি, অর্জুন কপূর-সহ একই সঙ্গে ফিরছে পুরো পরিবার।

বলিউডের প্রথম মহিলা সুপারস্টার শ্রীদেবীর মৃত্যু রহস্যের জট এখনও খোলেনি। সোমবারই ময়নাতদন্তের রিপোর্টের দাবি করা হয়, অভিনেত্রীর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়নি। বেসামাল হয়ে গিয়ে বাথটবে পড়ে জলে ডুবে মৃত্যু হয়েছে শ্রীদেবীর।

শ্রীদেবীর মৃত্যুর সময়কে কেন্দ্র করেও তৈরি হয়েছে নতুন প্রশ্ন। সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী, শনিবার রাত ১০টা বেজে ১ মিনিটে মৃত্যু হয় অভিনেত্রীর। দুবাইয়ের স্থানীয় সময় অনুসারে বিকেল সাড়ে ৫টা নাগাদ বনি কপূর শ্রীদেবীকে হোটেলের বাথটবে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় দেখতে পান। এক বন্ধু ও হোটেল কর্মীদের ডাকেন বনি।

এরপর শ্রীদেবীকে বাথটব থেকে তুলে সংজ্ঞা ফেরানোর চেষ্টা করা হয়। শেষপর্যন্ত রাত ৯টা নাগাদ জানানো হয় পুলিশকে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী, রাত ১০টা ১ মিনিটে মৃত্যু হয়েছে শ্রীদেবীর। মৃত্যু এবং পুলিশে খবর দেওয়ার মধ্যে কেন একঘণ্টার ব্যবধান, তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। কোনও চিকিত্সককে ডাকা হয়েছিল কিনা, সে সম্পর্কে নিশ্চয়তা মেলেনি।