শ্রীদেবীর মৃত্যু ঘিরে দানা বেঁধেছে রহস্য, ময়নাতদন্তের নির্দেশ

শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেত্রী শ্রীদেবী। শ্রীদেবীর মৃত্যুর খবর সামনে আসার পর থেকে সবাই জানে অভিনেত্রী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তবে এবার তার দেবর সঞ্জয় কাপুর দাবি করলেন, শ্রীদেবীর কোন হৃদরোগ ছিল না। তার এ মন্তব্যের পরই বলিউড কুইনের মৃত্যু ঘিরে রহস্য দানা বেঁধেছে। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম আজকালের এক প্রতিবেদনে এ কথা জানানো হয়েছে।

 যদিও দুবাইয়ে শ্রীদেবীর দেহের ময়নাতদন্ত করা হচ্ছে। সেই রিপোর্টেই জানা যাবে তার মৃত্যুর আসল কারণ। আজ সকালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত নবদীপ সিং সুরি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, পুলিশ শ্রীদেবীর মরদেহের ফরেনসিক প্রতিবেদন তৈরি করছে। এরপরই মরদেহ মুম্বাই পাঠানোর ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ননদের ছেলে মোহিত মারওয়ারের বিয়েতে অংশ নেওয়ার জন্য সম্প্রতি দুবাই যান শ্রীদেবী। অনুষ্ঠান শেষে হোটেলে ফিরে বাথরুমে গিয়েছিলেন। সেখানেই পড়ে যান হঠাৎ করে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় শ্রীদেবীর।

সেখানকার চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন ম্যাসিভ হার্ট অ্যাটাকের কারণেই এই মৃত্যু। পরিবারের লোকেরা বিষয়টা মেনে নিতে পারছেন না। কারণ সকলেরই দাবি কোনও দিন হার্টের কোনও সমস্যা ধরা পড়েনি শ্রীদেবীর। একেবারেই সুস্থ ছিলেন তিনি। শেষ যে ভিডিওতে তাঁকে দেখা গেছে সেখানেও কোনও অস্বাভাবিকতা ছিল না। বেশ হাসিখুশিভাবে ঘুরে বেড়াচ্ছিলেন। ছবি তুলছিলেন অতিথিদের সঙ্গে।

এখন ময়নাতদন্ত রিপোর্টের অপেক্ষায় রয়েছে পরিবার। রোববার দুপুরেই প্রাইভেট জেটে দুবাইয়ে রওনা হয়ে গেছে পরিবারের বাকি সদস্যরা। সেই বিমানেই রাতে মরদেহ নিয়ে আসা হবে মুম্বাইয়ে। আগামীকাল সোমবার রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষ কৃত্য সম্পন্ন হবে অভিনেত্রীর।