কেন ট্রাম্পকে মুসলিম বিশ্বের জন্য সেরা প্রেসিডেন্ট বললেন বুশ?

নানা ত্রুটি সত্ত্বেও মুসলিম বিশ্বের মোকাবেলায় ডোনাল্ড ট্রাম্প হচ্ছেন সেরা প্রেসিডেন্ট, বলেছেন আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডাব্লিউ বুশ। বুশ বলেন, “ডোনাল্ড ট্রাম্প এ পর্যন্ত নিয়ম-শৃঙ্খলার জন্য কোনো পুরস্কার পান নি, নিঃসন্দেহে তিনি ঘৃণ্য ব্যক্তি, মেজাজি এবং অসম্ভব রকমের গোঁয়ার্তুমি রয়েছে তার মধ্যে। এসবই তার অব্যাহত টুইটার পোস্ট থেকে পরিষ্কার হয়েছে। কোনেভাবেই আমি ট্রাম্পকে ভালো প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্বীকৃতি দিতে পারি না। তিনি বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর আসনে বসে বলদির্পতা দেখান, দেশের মানুষকে ভয়-ভীতি দেখান এবং মিথ্যা কথা বলেন। কিন্তু এসব সত্ত্বেও আমি এখনো মনে করি মুসলিম বিশ্বের জন্য তিনি হচ্ছেন সেরা প্রেসিডেন্ট।”

জর্জ বুশ আরও বলেন, “ট্রাম্পকে সেরা প্রেসিডেন্ট মনে করার কারণ হচ্ছে- দীর্ঘদিন ধরে আমাদের দেশটিতে মুসলমানরা উৎপাত করেছে কিন্তু ট্র্রাম্পের আমলে এগুলো শেষ হওয়ার কাছাকাছি রয়েছে।”

বুশ হচ্ছেন ট্রাম্পের চেয়ে মুসলিম বিশ্বে বেশি ঘৃণিত এবং ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর আমেরিকায় কথিত সন্ত্রাসী হামলার পর বলেছিলেন, “ক্রুসেড শুরু হয়ে গেছে।” এরপর তিনি ২০০৩ সালে সন্ত্রাসবাদের অজুহাত তুলে ইরাকে সামরিক আগ্রাসন চালান এবং তালেবান উৎখাতের নামে আফগানিস্তানে হামলা চালান । এসব আগ্রাসনে লাখ লাখ মুসলমান নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে অগণিত মানুষ। এছাড়া, এ দুটি দেশ অনেকটা চিরতরে পঙ্গু হয়ে যাওয়ার মতো অবস্থায় পড়েছে। পাশাপাশি সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের নামে সারা বিশ্বকে অস্থির করে তুলেছিলেন বুশ। এরপরও তিনি ট্রাম্পকে মুসলমানদের মোকাবেলায় সেরা প্রেসিডেন্ট মনে করছেন! প্রশ্ন উঠছে তাহলে ট্রাম্পের নেয়া পদক্ষেপগুলো কতটা ভয়াবহ ও ঘৃণিত?