দুবাই থেকে ভারতে আনার ব্যবস্থা চলছে শ্রীদেবীর মহদেহ

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীদেবী আর নেই। শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। সর্বসাম্প্রতিক অতীতের সবচেয়ে প্রভাবশালী এই নারী সুপারস্টারের হঠাৎ মৃত্যুতে হতবাক সবাই। তিনি সপরিবারে আরব আমিরাতের দুবাইয়ে ছিলেন। ওখানেই তাঁর এই অবাক করা মৃত্যু। শ্রীদেবীর মৃত্যুতে বলিউডে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৪ বছর।

মোহিত মারওয়াহ আর অন্তরা মোতিওয়ালার বিয়ের অনুষ্ঠানে সপরিবারে হাজির ছিলেন তিনি। তাঁর দেবর সঞ্জয় কাপুর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে গতকাল রাতে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস.কমকে বলেন, হ্যাঁ, এটা সত্য যে শ্রীদেবী প্রয়াত হয়েছেন। আমি কিছুক্ষণ আগে ভারতে নেমেছি। আমি এখনই আবার ফিরে যাচ্ছি দুবাইয়ে। এ ঘটনাটি ঘটেছে আনুমানিক রাত ১১টা থেকে সাড়ে ১১টার ভেতর।

তাঁর এই হঠাৎ প্রয়াণ হতবাক করেছে সবাইকে। তিনি ছিলেন সুস্থ, স্বাভাবিক, সবল একজন মানুষ। আপাতদৃষ্টিতে বড় কোনো অসুস্থতা তাঁর ছিল না। তাঁর পরিবারের খুব কাছের একজন বলেন, বড় কোনো অসুস্থতা তাঁর ছিল না। আর তাই তাঁর এই হঠাৎ মৃত্যু সংবাদটি বেদনাদায়ক। দুবাইয়ে তাঁর একটি বড় রকমের কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়। তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হয়। কিন্তু, দুর্ভাগ্যজনক ব্যাপার হলো, চিকিৎসকরা তাঁকে আর ফিরিয়ে আনতে পারেননি। এটা সত্যিই ভীষণ অপ্রত্যাশিত একটা বিষয় ছিল।

শ্রীদেবীর শেষ সময়ে তাঁর স্বামী বনি কাপুর ও ছোট মেয়ে খুশি তাঁর শয্যাপাশে ছিলেন। বড় মেয়ে জাহ্নবী তাঁর প্রথম ছবির শুটিংয়ের কাজে ব্যস্ত থাকায় মুম্বাইয়ে ছিলেন।

একটি সূত্র জানায়, বনি ইতিমধ্যে শ্রীদেবীর মরদেহ ভারতে ফিরিয়ে আনার জন্য সব ব্যবস্থা শুরু করে দিয়েছেন।