বাংলাদেশকে একটি পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়েছেঃ মওদুদ

পাঁচশ’ বছর আগে রোমে যেভাবে অত্যাচার চালাত ঠিক একইভাবে বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর ক্ষমতাসীন দল অত্যাচার করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। তিনি বলেন, আজকে বাংলাদেশকে একটি পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়েছে।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ ইয়ুথ ফোরাম আয়োজিত ১২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

মওদুদ আহমদ বলেন, রোমে ৫শ’ বছর আগে বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের শাস্তি দেওয়া হতো বাঁচিয়ে রেখে কষ্ট দিয়ে। মেরে ফেললে তো একবারে শেষ। তাই যত ধরনের দুর্যোগ, অত্যাচার, নির্যাতন, নিরাপত্তাহীনতা ও আতঙ্কের মধ্যে রেখে শাস্তি দিতো। অর্থাৎ বাঁচিয়ে রেখে মারো। সেটা এখন এই দেশে হচ্ছে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার যেভাবে দেশ শাসন করছে সেটা রোমের চেয়ে আরও বেশি ভয়ঙ্কর। আজকে বাংলাদেশকে একটি পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়েছে।

আজকের পত্রিকায় এসেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, আমরা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বাধা দিবে না। আমাদের সেই শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশের জলকামান দিয়ে শায়েস্তা করা হয়েছে। আমাদের অনেক নেতাকর্মীর পুরো শরীর ভিজে গেছে। আমরা কি বলবো স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এক কথা বলছেন, আবার পুলিশের আইজিপি অন্যভাবে কাজ করছেন।

মওদুদ আহমদ বলেন, ১৯৭৫ সালের একদলীয় সরকারের সঙ্গে বর্তমান সরকারের কোনো ভিন্নতা নেই। ওই সময়ে চেয়ে সরকার এখন আরও বেশি ভয়াবহ। কারণ ওই সরকারের সময় আওয়ামী লীগ বলেই দিয়েছিল তারা ছাড়া অন্য সব রাজনৈতিক দলের কার্যক্রম নিষিদ্ধ। তারা আর কিছু তখন করেনি।

আজকে ঠিক সেই একই দল ভিন্নভাবে শাসন করছে। সেটা আরও বেশি নিষ্পেষিত। এখনকার পলিসি আরও ন্যাক্কারজনক এবং নিম্নমানের। আজকে যদি সবদল একসঙ্গে বসে সংবিধান সংশোধন করতো তাহলে সেটা ঠিক আছে।

এখনকার ব্যবস্থায় গণতন্ত্র আছে কিন্তু বাস্তবে গণতন্ত্র নাই; বিচার বিভাগের স্বাধীনতা আছে, কিন্তু বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নাই; আইনের শাসন আছে কিন্তু, আইনের শাসন নাই।

তিনি আরও বলেন, সরকারি দলের জন্য আইনের একরকম প্রয়োগ, আবার বিরোধীদলের জন্য অন্যভাবে প্রয়োগ করা হয়।