পোশাকের মিল কী শুধুই কাকতালীয়?

বাংলাদেশ ফিল্ম ক্লাবের বার্ষিক বনভোজনে খাওয়া-দাওয়া পর্ব চুকিয়ে সোফায় বসে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করছিলেন এ সময়ের আলোচিত তারকা জুটি শাকিব খান ও শবনম বুবলী।

একটু খেয়াল করতেই দেখা গেল শাকিব-বুবলী দুজনেই পরেছেন একই রঙের পোশাক। দুজনের পরনেই ছিল সাদা রঙের পোশাক। এর মধ্যে শাকিব পরেছিলেন সাদার মধ্যে কালো ছাপা শার্ট। অন্যদিকে বুবলীর পরনে ছিল সাদার মধ্যে সোনালি-খয়েরি মিশেলের কাজ করা টপস। দুজনেই পরেছিলেন হালকা নীল জিনসের প্যান্ট।

গতকাল শুক্রবার রাজধানীর আশুলিয়ার তুরাগ ক্রিয়েশন ওয়ার্ল্ডে আয়োজিত বনভোজনেই এমন দৃশ্যর দেখা মিলেছে।

তবে কি মিলিয়ে পোশাক পরে বনভোজনে অংশ নিয়েছিলেন সময়ের এই দুই আলোচিত তারকা? ঘটনাটি জানতে যোগাযোগ করা হয় দুই তারকার সঙ্গে।

প্রশ্ন শুনে হেসে ফেলেন নায়িকা শবনম বুবলী। তিনি বলেন, ‘আমরা জুটি বেঁধে অভিনয় করছি বলে অনেকেই এমন মনে করেছেন। আসলে তা নয়। আমি জানতাম না শাকিব খান বনভোজনে কি রঙের পোশাক পরেছেন। আমি ৩টার দিকে বনভোজনে যাই, সেখানে গিয়ে দেখি শাকিব খান এমন রঙের পোশাক পরে আছেন, যা আমার ড্রেসের রঙের সাথে মিলে যায়। আমরা আসলে ইচ্ছে করে একই রঙের পোশাক পরিনি। তা ছাড়া এটা গতকাল বনভোজনেই প্রথম নয়, আমাদের প্রায়ই পোশাক মিলে যায়। অনেকেই মনে করে আমরা আগে থেকে পোশাক ঠিক করে অনুষ্ঠানে গিয়েছি।’

একই প্রশ্নের জবাবে শাকিব খান বলেন, ‘আমি তো সকালেই বনভোজনে যাই। তখন ছিল পাঞ্জাবি পরা। দুপুরে ফুটবল খেলার পর আবার ড্রেস পরিবর্তন করি। তার কিছুক্ষণ পর বুবলী বনভোজনে আসে, আমাদের ড্রেস যে ম্যাচিং তা তখনো আমি বুঝতে পারিনি, বিকেলে যখন আমরা ম্যাচের সামনে একসাথে বসি, তখন বিষয়টি লক্ষ্য করি। একই রঙের ড্রেস, ম্যাচিং এগুলো একেবারেই কাকতালীয়।

বাংলাদেশ ফিল্ম ক্লাবের বার্ষিক এই বনভোজনে অংশ নেন চলচ্চিত্র প্রযোজক, পরিচালক, শিল্পী ও কলাকুশলীরা।