‘রায় দিলো কোর্ট আর দোষ হলো সরকারের’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশে বিএনপির কি এমন কোনো নেতা নেই যে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন হবেন? দুর্নীতির দায়ে যিনি সাজাপ্রাপ্ত আসামি, রাজনীতি করবেন না বলে মুচলেকা দিয়ে যিনি দেশ ছেড়ে চলে গেছেন তাকেই করতে হলো দলের চেয়ারপারসন।

তিনি বলেন, মামলা করলো তত্ত্বাবধায়ক সরকার, রায় দিলো কোর্ট আর দোষ হলো সরকারের। আজ সোমবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ এম মাহমুদ আলী, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ছাড়াও বিভিন্ন মিডিয়ার সিনিয়র সাংবাদিক, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে অনেকে অনেক কথা বলেন। কিন্তু বিশেষ লোকের ক্ষেত্রে দুর্নীতি হলে অনেকে এটা নিয়ে কোনো কথা বলেন না। তিনি বলেন, বিএনপির গঠনতন্ত্রে সব ক্ষমতা চেয়ারপারসনের। আমাদের (আওয়ামী লীগের) গঠনতন্ত্রে কিন্তু তা নেই। এখানে সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী হলো নির্বাহী কমিটি ও প্রেসিডিয়াম সদস্যরা।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১১ থেকে ১৪ ফেব্রুয়ারি ইতালি ও ভ্যাটিকান সিটিতে চারদিনের সরকারি সফর করেন। তিনি আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিলের (ইফাদ) প্রেসিডেন্ট গিলবার্ট এফ হংবো-এর আমন্ত্রণে ইফাদে’র বার্ষিক পরিচালনা পর্ষদের বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন।