কুর্দিদের সঙ্গে সিরীয় সরকারের সমঝোতা

সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের কুর্দি যোদ্ধাদের সঙ্গে সিরীয় সরকারের একটি সমঝোতা হয়েছে। চুক্তি অনুসারে আফরিনে তুরস্কের হামলা মোকাবিলায় কুর্দিদের সহযোগিতায় সেনা পাঠাবে সিরিয়া। কুর্দিদের পক্ষ থেকে এই সমঝোতার বিষয়টি জানালেও সিরীয় সরকারের পক্ষে তা নিশ্চিত করা হয়নি। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

ইরাকি কুর্দি সংবাদমাধ্যম রুদাও’র এক খবরেও এই চুক্তির কথা বলা হয়েছে। সিরিয়ায় একজন কুর্দি রাজনীতিক ও সিরিয়ায় কুর্দি বাহিনী সমর্থিত সংবাদ সংস্থার বরাত দিয়ে খবরটি প্রকাশ করা হয়েছে। বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিসের মধ্যপ্রাচ্য সম্পাদক অ্যালান জনস্টনের মতে, যদি চুক্তিটি হয়ে থাকে তাহলে আফরিনে তুর্কি বাহিনীকে কুর্দি যোদ্ধাদের পাশাপাশি সিরীয় সেনাবাহিনীরও মুখোমুখি হতে হবে।

জানুয়ারিতে তুর্কি সীমান্তের কাছে সিরীয় ভূখণ্ড আফরিনে সামরিক অভিযান শুরু করে সিরিয়া। তুরস্ক কুর্দিদের সন্ত্রাসী হিসেবে মনে করে। আফরিন সিরীয় ভূখণ্ড হলেও বর্তমানে সেখানে সরকারের কোনও নিয়ন্ত্রণ ও সেনা নেই। কুর্দিদের উচ্চ পদস্থ এক কর্মকর্তা বাদরান জিয়া কুর্দ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, যে কোনও দিন আফরিনে সিরিয়ার সরকারি সেনাবাহিনী প্রবেশ করতে পারে। সীমান্তের কয়েকটি অবস্থানে তাদের মোতায়েন করা হতে পারে।

ওয়াইপিজির নেতা জিয়া কুর্দ বলেন, আন্তর্জাতিক নীরবতা ও বর্বর অপরাধের মুখে আমাদের সাহায্য করলে আমরা যে কাউকে সহযোগিতা করতে পারব। তবে কোনও রাজনৈতিক আয়োজন না থাকায় এই চুক্তি অকার্যকর হয়ে পড়তে পারে বলেও আশঙ্কার কথা জানান তিনি। জিয়া বলেন, ‘এই বোঝাপড়া কতদিন টিকবে তা আমরা জানি না। কারণ এখানে কেউ কেউ এটাকে ব্যর্থ করতে চায়।’

একজন কুর্দি রাজনৈতিক কর্মকর্তা বরাত দিয়ে রয়টার্সের খবরে বলা হয়, ওয়াইপিজি ও সিরিয়ার সরকারের মধ্যে যে কোনও চুক্তিতে রাশিয়া বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। কারণ এর ফলে তুরস্কের সঙ্গে তাদের কূটনীতিক প্রচেষ্টা জটিল হয়ে পড়বে। আবার যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে অর্থ সহায়তা পাওয়া ওয়াইপিজির কারণেও পরিস্থিতি জটিল হতে পারে।

SHARE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here