জামালপুরে প্রশ্ন ফাঁস, কোচিং সেন্টারের মালিক আটক

জামালপুরের বকশীগঞ্জে প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে সাব্বির (২৪) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। তিনি একটি কোচিং সেন্টারের মালিক। এসময় জব্দ করা হয়েছে ফাঁস হওয়া প্রশ্নসহ এক আইনজীবীর মোবাইল ফোন। শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বকশীগঞ্জ এনএম উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

কেন্দ্র সচিব ও বকশীগঞ্জ এন এম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুমুল হক সিদ্দিকী জানান, শনিবার বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় বিষয়ের পরীক্ষার ঠিক ১০ মিনিট আগে সাব্বির পরীক্ষা কক্ষে ঢুকে কিছু ছাত্রকে নকল সরবরাহ করে। এ সময় তাকে আটক করে তার মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। পরে তার মোবাইল ফোনে প্রশ্নপত্র পাওয়া যায়। একই সময় অন্য একটি কক্ষে আজাহার আলী সাজু নামে এক আইনজীবীর মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। তার মোবাইলেও প্রশ্নপত্র পাওয়া যায়।

পালিয়ে যাওয়া আজাহার আলী সাজু জামালপুর বার অ্যাসোশিয়েশনের সদস্য ও স্থানীয় নজরুল ইসলাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। আটক সাব্বির একটি কোচিং সেন্টারের মালিক। সাব্বিরকে আটক করা হলেও আইনজীবী দ্রুত পালিয়ে যায়, তবে আইনজীবীর মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবু হাসান সিদ্দিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সাব্বির ও পালিয়ে যাওয়া আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।