‘খালেদাকে মুক্ত করেই বিএনপি নির্বাচনের দিকে অগ্রসর হবে’

বিএপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির আগে আমরা নির্বাচনের চিন্তা করছি না। খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে বিএনপি নির্বাচনের দিকে অগ্রসর হবে। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় খালেদা জিয়ার সাজার প্রতিবাদ ও তার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচির উদ্ধোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

সরকারকে উদ্দেশ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, আপনারা বেগম জিয়াকে মাইনাস করার জন্য ষড়যন্ত্র করছেন। কিন্তু এদেশের জনগণ আপনাদের সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হতে দেবে না। কারণ, যারা অতীতে মাইনাস টু ফর্মুলা বাস্তবায়ন করতে চেয়েছিল। তারা দেশে থাকতে পারেনি। ইতিহাসের আস্থাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছে।

একই অনুষ্ঠানে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, বিএনপি অক্ষমতার কারণে নাকি শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দিচ্ছে- ওবায়দুল কাদের সাহেবকে ধন্যবাদ জানাই কারণ তারা অত্যাচার করে ২০০৬ সালের ২৮ অক্টোবর লগি বৈঠা দিয়ে পিটিয়ে মানুষ হত্যা করেছেন। ‘বিএনপি অশান্তির দল নয়, কখনো ছিল না। বিএনপি শান্তিপূর্ণ দল। শান্তিপূর্ণই থাকবে। অশান্তি করতে চাইলে আপনারা করতে পারেন।’

স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, বিশ্বময় এটি একটি উত্তম গণতান্ত্রিক পন্থা। একটি দাবি আদায় করার জন্য জনগণের স্বাক্ষর গ্রহণ করা। এর চেয়ে ভালো শান্তিপূর্ণ কার্যকর কর্মসূচি আর হতে পারে না। জাতীয়তাবাদী দল শান্তিতে বিশ্বাস করে। গণতান্ত্রিক অধিকারে আদায়ে এবার আমরা দৃষ্টান্ত স্থাপন করবো। এই গণতান্ত্রিক অধিকার শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে আদায় করা সম্ভব। আমরা সেই পথেই এগোচ্ছি।

সারা বাংলাদেশব্যাপী এই স্বাক্ষর অভিযান চলবে জানিয়ে প্রবীণ এই আইনজীবী বলেন, এর মাধ্যমে আমরা আমাদের নেত্রীকে মুক্ত করে আনবো। বাংলাদেশে অধিকার ফিরিয়ে আনবো। জনগণের অধিকার, ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনবো। দেশে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমের নির্বাচিত সরকার গঠন করা হলে আমরা এই দেশে নতুন করে গণতন্ত্রের চর্চা শুরু করবো। বাংলাদেশের মানুষ আবার শান্তিতে থাকতে পারবে।