ভ্যালেন্টাইনস ডেতে নারী পুলিশকে প্রেমের প্রস্তাব, অতঃপর!

ঘটনাটি ঘটেছিল গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালবাসা দিবস বা ভ্যালেন্টাইনস ডে’র দিন ছিল। এদিন অনেক যুগলকেই রাস্তা, পার্কে হাত ধরে ধরে ঘুরতে দেখা গেছে। কিন্তু ২৮ বছরে পৌঁছেও জীবন সঙ্গিনী পাওয়ার সৌভাগ্য হয়নি ভারতের উত্তরপ্রদেশের মোরাদাবাদের এক যুবকের। তাই এক নারী পুলিশকে প্রেমের প্রস্তাব করেছিলেন তিনি।

কিন্তু এরপরই বাধে যত বিপত্তি। পুলিশ ছুঁলে যে ছত্রিশ ঘা তা হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছেন ওই যুবক। অনেক কাকুতি-মিনতি এবং কানমলা খেয়েও শেষরক্ষা হয়নি। অভিযুক্ত যুবককে পুলিশ আটক করেছে। উত্তরপ্রদেশের মোরাদাবাদের এই ঘটনায় অবাক অনেকেই। আসলে রোড রোমিওদের দৌরাত্ম্যে লাগাম পরাতেই সাদা পোশাকের নারী পুলিশ ঘুরছিলেন মোরাদাবাদের রাস্তা এবং একাধিক পার্কে।

সুন্দরী পুলিশকর্মীকে দেখে আর নিজেকে সামলাতে পারেননি বিনয় শ্রীবাস্তব নামের ওই যুবক।  কালবিলম্ব না করে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে ফেলেন। স্রেফ প্রপোজ করলে জল এতদূর গড়াত না। পুলিশ সতর্ক করে হয়তো ছেড়ে দিত। কিন্তু বিনয় প্রস্তাব দিতে গিয়ে আপত্তিকর কাজকর্ম করেন বলে অভিযোগ। তদন্তকারীদের অভিযোগ পুলিশকর্মীর উদ্দেশে অশ্লীল ইঙ্গিতও করেন ওই যুবক। প্রথমে বিষয়টি কিছু বুঝতে দেননি ওই নারী পুলিশকর্মী।

তিনি কৌশলে অভিযুক্ত যুবককে পুলিশ ফাঁড়ির দিকে নিয়ে যান। অচেনা নারীর এমন আবদারে সন্দেহজনক কিছু মনে হয়নি বিনয়ের। ভেবেছিলেন ওপাশ থেকে যেহেতু সায় এসেছে, অতএব এগুলে মন্দ নয়। এভাবে অভিযুক্ত যুবককে নিয়ে পুলিশকর্মী পৌঁছে যান ফাঁড়ির কাছে। যেখানে জিপ নিয় অপেক্ষায় ছিলেন বেশ কয়েকজন সহকর্মী। পুলিশের জিপ দেখে বিপদ আঁচ করে ওই তরুণ। ততক্ষণে যা হওয়ার হয়ে গেছে। পাঁজাকোলা করে জিপে তাঁকে জিপে তোলেন পুলিশকর্মীরা। ততক্ষণে দেখা যায় জিপে আরও কয়েকজন ঠাসাঠাসি করে বসে আছেন।

উত্তরপ্রদেশে অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াডের বিরুদ্ধে বাড়াবাড়ির অভিযোগ অবশ্য কম নয়। যোগী আদিত্যনাথ ক্ষমতায় আসার পর এই বাহিনী নামে। এই স্কোয়াড মাঠে নামার পর নারীঘটিত অপরাধ বেশ কিছুটা কমেছে বলে দাবি প্রশাসনের। তবে মোরাদাবাদের ঘটনা বুঝিয়ে দিল রাজ্যে এখনও এই ধরনের ঘটনা কমার কোনও ইঙ্গিত নেই।