দলীয় চাপে জুমার পদত্যাগ, দলের সাথে মত বিরোধ

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমা নিজের দলের চাপের মুখে পড়েই পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন। বুধবার রাতে তিনি পদত্যাগের ঘোষণা দেন টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে। দক্ষিণ আফ্রিকার ক্ষমতাসীন দল আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেস (এএনসি) পদত্যাগের জন্য তাকে ৪৮ ঘন্টা সময় বেধে দিলে তিনি ওই ঘোষণা দেন।

তবে তিনি দলের সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত নন বলে জানিয়েছেন। গত সোমবার জুমার পদত্যাগের ঘটনায় এএনসির দলীয় বৈঠক হয়। পদত্যাগ না করলে তাকে আজ (বৃহস্পতিবার) পার্লামেন্ট অনাস্থা ভোটের মুখে পড়তে হতো। ২০০৯ সাল থেকে ক্ষমতায় থাকা জুমার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অনেক অভিযোগ উঠেছে তার ওপর পদত্যাগের চাপ বাড়ছিল তাই। নিজ দল এএনসির ভেতরেই প্রচণ্ড চাপে পড়তে হয়। গত ডিসেম্বরেই, তার স্থলে সিরিল রামাফোসাকে দলীয় প্রধানের দায়িত্ব দেয়া হয়। তিনি ছিলেন দলের ভাইস প্রেসিডেন্ট ।

জুমার বিরুদ্ধে প্রধান অভিযোগ, তিনি রাষ্ট্রীয় অর্থ আত্মসাৎ করেছেন। সেই সাথে তিনি ব্যবসায়ীদের রাজনীতিতে নাক গলানোর সুযোগ করে দিয়েছেন। তার সহযোগিতায় ভারতীয় বংশোদ্ভূত ‘গুপ্ত পরিবার’ নামে একটি সুপরিচিত ব্যবসায়ী পরিবার রাজনীতিতে বেপরোয়া হস্তক্ষেপ করছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

এএনসি এক বিবৃতিতে জানায়, এই পদক্ষেপের মধ্য দিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার মানুষের জীবন সংশয়মুক্ত হলো ভাইস প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা এখন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করবেন বলে মনে করা হচ্ছে।তবে এ বিষয়ে সংসদই সিদ্ধান্ত নেবে। জুমার পদত্যাগের ঘোষণার পরই এই বিবৃতি দেয় এএনসি।