তেল আবিবে আবারও বিক্ষোভ, নেতানিয়াহুর পদত্যাগ

ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্নীতির আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আনা হবে বলে পুলিশ ঘোষণা করার পর তেল আবিবে আবারও বিক্ষোভ হয়েছে। এক বিবৃতিতে ইসরাইলি পুলিশ জানিয়েছে, ঘুষ, প্রতারণা ও অবৈধভাবে ক্ষমতা ব্যবহারের দুটি পৃথক মামলায় নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যথেষ্ট তথ্যপ্রমাণ হাতে পেয়েছে তারা।

বিক্ষোভকারীরা নেতানিয়াহুর বাসভবনের সামনে সমবেত হয়ে নানা স্লোগান দিতা থাকে। প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ঘুষ, প্রতারণা ও অবৈধভাবে ক্ষমতা ব্যবহারের আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আনা হবে বলে পুলিশ ঘোষণা করার পর পরই এ বিক্ষোভ হলো। তবে নেতানিয়াহু ইসরাইলের টেলিভিশনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, সব অভিযোগ ভিত্তিহীন। আরও বলেন, তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বে বহাল থাকবেন।

গত দুই মাস ধরেই নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে ইসরাইলে আন্দোলন হচ্ছে। তার বিরুদ্ধে ঘুষ নেয়া, প্রতারণা ও বিশ্বাস ভঙ্গের অভিযোগ রয়েছে। এরই মধ্যে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা আলাদা দুটি মামলায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

মামলা দুটির মধ্যে একটি হচ্ছে- জার্মানি থেকে সাবমেরিন কেনার ক্ষেত্রে দুর্নীতি। অন্যটি হচ্ছে- ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে উপহারের নামে ঘুষ গ্রহণ এবং বিনিময়ে একটি পত্রিকায় ভালো কভারেজ দেয়ার জন্য পত্রিকার মালিকের সঙ্গে আলোচনা করে দেয়া। ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রীসহ শীর্ষ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ঘুষ ও দুর্নীতির অভিযোগ নতুন কিছু নয়। এর আগে ২০১৪ সালে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইহুদ ওলমার্টের বিরুদ্ধেও ঘুষ নেয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে দেড় বছর জেল খাটতে হয়েছে।