তামিম-মুশফিকের পানে চেয়ে বাংলাদেশ! 

যত সংশয় ছিল তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহীমকে নিয়ে। এক নম্বর ওপেনার তামিম আর মিডল অর্ডার ব্যাটিংয়ের স্তম্ভ মুশফিক কি খেলতে পারবেন এই ম্যাচে! কৌতুহলি প্রশ্ন এখন প্রতিটি বাংলাদেশ সমর্থকের। শেষ খবর, সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে খেলবেন মুশফিকুর রহীম।

টিম ম্যানেজমেন্টের ঘনিষ্ট সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। সূত্র জানিয়েছে আজ সকালে ফিটনেস টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েছেন মুশফিকুর রহীম। তাই তাকে খেলানো হবে। এখন চিন্তা ও সংশয় তামিম ইকবালকে নিয়ে। বাহুর মাশলে টান পড়া তামিম খেলতে পারবেন না, সকাল থেকে এমনটাই ধরে নেয়া হয়েছিল। কিন্তু দুপুরে তামিম নিজে থেকেই নাকি খেলার ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেছেন।

জানা গেছে, তামিমকে বাইরে রেখে ১২ জনের দল চূড়ান্ত করা হয়েছিল। যেখানে তামিম ছাড়াও ছিল না দুই পেসার আবু হায়দার রনি, আবু জায়েদ রাহী, মোহাম্মদ মিঠুন আর অফ-স্পিনার মেহেদি হাসানের নাম। এর মধ্যে পেসার রনি, রাহী আর অফ-স্পিনার মেহেদি, এই তিনজন ঠিকই বাইরে থাকবেন। তাদের আজকের ম্যাচ খেলার সম্ভাবনা শূন্যের কোঠায়। তবে তামিম খেলবেন কি খেলবেন না? তা জানা যাবে টিম হোটেল থেকে দল মাঠে যাবার পর।

বৃহস্পতিবার বিকেলে দল শেরে বাংলায় যাবার পর মাঠে গিয়ে ব্যাটিং করে দেখবেন তামিম। কোন রকম অস্বস্তি বোধ করলে খেলবেন না দেশসেরা ওপেনার। আর সমস্যা না হলে খেলবেন। এরকম অবস্থায় তামিম ইস্যু ঝুলে আছে। তামিমের ওপর নির্ভর করছে তরুণ জাকিরের খেলা না খেলা। তামিম না খেললে জাকির একাদশে ঢুকে যাবেন। আর তামিম খেললে তার আর জায়গা হবে না।

একইভাবে মুশফিককেও মাঠে গিয়ে আরও একবার পরীক্ষা করে দেখা হবে। যেহেতু টিম কম্বিনেশন ও সম্ভাব্য একাদশে মিঠুনও নেই। তাই মুশফিকের বিকল্প হিসেবে মোহাম্মদ মিঠুনকেও তৈরি থাকতে বলা হয়েছে। মুশফিক মাঠে গিয়ে অস্বস্তি বোধ করলে তার জায়গা নেবেন ব্যাটসম্যান কাম কিপার মোহাম্মদ মিঠুন। তাই শেষ মুহুর্তে বাঁ-হাতি স্পিনার নাজমুলকে নিয়ে সাজানো টাইগার একাদশে দুই জেনুইন স্পিনারের পাশাপাশি সিমিং অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিনকে ধরে তিন পেসার নিয়ে মাঠে নামার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত।

মাহমুদউল্লাহ বাহিনীর সম্ভাব্য লাইন আপ হতে পারে 

তামিম ইকবাল/ জাকির হোসেন, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহীম/ মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, আফিফ হোসেন, আরিফুল হক, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, নাজমুল অপু, মোস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন।