ইসরাইলি গোয়েন্দা ড্রোন লক্ষ্য করে সিরিয়ার বিমান হামলা

সিরিয়ার সরকারি বার্তা সংস্থা সানা বুধবার রাতে জানিয়েছে, “দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় কুনেইত্রা প্রদেশের আকাশে একাধিক ইসরাইলি গোয়েন্দা ড্রোন লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছে সিরিয়ার বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। এর ফলে সেগুলো সিরিয়ার আকাশসীমা ত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছে।”

সিরিয়ার বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সিরিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের আকাশ থেকে ইহুদিবাদী ইসরাইলি গোয়েন্দা ড্রোন সরিয়ে দিয়েছে। এর ফলে এবার নিজের আকাশসীমায় ইহুদিবাদী ড্রোনের অবাধ বিচরণ কার্যকরভাবে আটকে দিতে ইসরাইলি জঙ্গিবিমান গুলি করে ভূপাতিত করল দামেস্ক। সিরিয়ার সেনাবাহিনী দেশটির আকাশসীমা লঙ্ঘনকারী একটি ইহুদিবাদী এফ-১৬ জঙ্গিবিমান গুলি করে ফেলে দেয়ার কয়েকদিনের মাথায় ড্রোন হটিয়ে দেয়ার ঘটনা ঘটল।

গত সপ্তাহে ইসরাইলি সেনাবাহিনী স্বীকার করে সিরিয়ার গুলিতে তাদের একটি এফ-১৬ জঙ্গিবিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। বিমানটির দুই পাইলট প্যারাশুটের সাহায্যে নীচে নেমে এলেও দু’জনকেই সাথে সাথে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা ছিল আশঙ্কাজনক। তবে পরবর্তীতে ওই পাইলটের শারিরীক অবস্থা সম্পর্কে আর কোনো তথ্য পাওয়া যায় নি।

গত কয়েক বছরে সিরিয়ার অভ্যন্তরে বহুবার বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। সিরিয়ার সেনাবাহিনী যখন উগ্র তাকফিরি জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে যুদ্ধে ব্যস্ত ছিল তখন এসব হামলা চালিয়েছে তেল আবিব। কিন্তু এখন দামেস্কের পাল্টা হামলা থেকে পরিষ্কারভাবে বুঝা যায়, সিরিয়া সরকার আগের মতো আর ইসরাইলি ইহুদিদের নির্বিঘ্নে তাদের দেশে হামলা চালাতে  দেবে না।