বছরটা দুর্দান্ত কাটছে আগুয়েরোর!

২০ দিনের ব্যবধানে করলেন দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক। এবার তো একাই করলেন চার গোল। আর্জেন্টাইন তারকার নৈপুণ্যে লেস্টার সিটিকে উড়িয়ে দিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি।শনিবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে লেস্টারকে ৫-১ গোলে হারিয়েছে পেপ গুয়ার্দিওলার দল। গত ২০ জানুয়ারি নিউক্যাসল ইউনাইটেডকে ৩-১ ব্যবধানে হারাতে তিনটি গোলই করেছিলেন আগুয়েরো।

ঘরের মাঠে ম্যাচের তৃতীয় মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইনের ক্রস পেয়ে কাছ থেকে বল জালে পাঠান রাহিম স্টার্লিং। ২৪তম মিনিটে বল পায়ে অনেকটা দৌড়ে প্রায় ১৬ গজ দূর থেকে নিচু শটে লেস্টারকে সমতায় ফেরান জেমি ভার্ডি। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে আগুয়েরো দুবার বল জালে পাঠালে জয় অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায় ম্যানচেস্টার সিটির। এই দুটি গোলেও অবদান ডি ব্রুইনের।

৪৮তম মিনিটে বাঁ-দিকে স্টার্লিংয়ের সঙ্গে একবার বল দেওয়া নেওয়া করে ডি ব্রুইনের ছয় গজ বক্সের মুখে বাড়ানো বল অনায়াসে তা লক্ষ্যে পাঠান আগুয়েরো। আর গোলরক্ষকের ভুলে বল ধরে বেলজিয়ামের ফরোয়ার্ড ডি ব্রুইনের বাড়ানো পাস ধরে কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার। বল গোলরক্ষকের গায়ে লেগে ভিতরে ঢুকে।৭৭তম মিনিটে আবারও কাসপের স্মাইকেলের ভুলে গোল খায় ২০১৫-১৬ মৌসুমের চ্যাম্পিয়নরা। ডেনমার্কের এই গোলরক্ষকের দুর্বল শট ধরে ডি-বক্সে ঢুকে উঁচু শটে হ্যাটট্রিক পূরণ করার পাশাপাশি সব অনিশ্চয়তার ইতি টানেন আগুয়েরো। মৌসুমে এটা তার তৃতীয় হ্যাটট্রিক।

আর যোগ করা সময়ে প্রায় ২০ গজ দূর থেকে জোরালো শটে লেস্টারের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন আগুয়েরো। বল ক্রসবারের নিচের দিকে লেগে জালে জড়ায়।এবারের লিগে এই নিয়ে ২১ গোল করে লিভারপুলের মোহামেদ সালাহকে ছুঁলেন আগুয়েরো। ২ গোল বেশি নিয়ে তালিকার শীর্ষে টটেনহ্যাম হটস্পারের হ্যারি কেইন।২৭ ম্যাচে ২৩ জয় ও তিন ড্রয়ে ম্যানচেস্টার সিটির পয়েন্ট হলো ৭২। ১৬ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

দিনের প্রথম ম্যাচে আর্সেনালকে ১-০ গোলে হারানো টটেনহ্যাম ২৭ ম্যাচে ৫২ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে। যথাক্রমে চতুর্থ ও পঞ্চম স্থানে আছে এক ম্যাচ করে কম খেলা লিভারপুল (৫১) ও চেলসি (৫০)।ষষ্ঠ স্থানে থাকা আর্সেনালের পয়েন্ট ২৭ ম্যাচে ৪৫।