ডিভোর্স মেনে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অপু

অবশেষে ডিভোর্স মেনে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অপু বিশ্বাস। আজ সোমবার সকালে এমনটাই জানালেন ঢালিউডের আলোচিত এই নায়িকা।

গত ২২ নভেম্বর অপুকে তালাক নোটিশ পাঠান শাকিব। আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি অপুকে পাঠানো শাকিবের তালাক নোটিশের ৯০ দিন পূরণ হবে। গত ১৫ জানুয়ারি সালিশী বৈঠকে অপু উপস্থিত থাকলেও শাকিব তাতে অংশ নেননি। গত ১৫ জানুয়ারি সালিশী বৈঠকে অপু উপস্থিত থাকলেও শাকিব তাতে অংশ নেননি। নানা রকম চেষ্টার পরও শাকিব অপূর্ব সাথে সমঝোতায় আসেননি। তাই অপু ডিভোর্স মেনে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

অপু বলেন, ‘শাকিবের (চিত্রনায়ক শাকিব খান) সঙ্গে সংসার টিকিয়ে রাখার অনেক চেষ্টাই করেছি। আমার দিক থেকে কোনো ত্রুটি ছিল না। এমনকি প্রথম সালিশ বৈঠকেও হাজির হয়েছিলাম ডিএনসিসিতে। কিন্তু শাকিবের পক্ষ থেকে কোনো ইতিবাচক সাড়াশব্দ এখন পর্যন্ত পাইনি। তাই আমিও ডিভোর্সের বিষয়টা মেনে নিয়েছি। আজ আর সালিশী বৈঠকে যাব না। তাছাড়া সেখানে গিয়ে কোনো লাভ হবে বলেও মনে করি না।’

শাকিব খানের নামে সম্প্রতি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) মেয়র বরাবর একটি তালাকনামার নোটিশ পাঠানো হয়। এই নোটিশের সূত্র ধরেই তাদের সংসার টিকানোর চেষ্টা করছে ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে দু’জনের সমঝোতা না হলে বিধি মোতাবেক ডিভোর্স কার্যকর হয়ে যাবে।