আয়নাবাজির রিমেক তেলেগু ভাষায় ‘গায়ত্রী’

সাম্প্রতিক সময়ে নির্মিত বাংলাদেশের অধিকাংশ ছবিই তামিল অথবা তেলেগু ভাষার নকল। বিষয়টা নিয়ে আগে কিছুটা রাগ-ঢাক থাকলেও এখন অনেকটা প্রকাশ্যেই স্বীকার করা হয় গল্প চুরির কথা। 

কিন্তু বাংলাদেশের ছবির গল্পও অন্য জায়গায় নেয়া হয়, সেখানে চুরির অভিযোগ ওঠে না। কারণ বৈধ প্রক্রিয়ায় সেটা বিনিময় করা হয়। যেমনটা হয়েছে ২০১৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘আয়নাবাজি’ ছবির ক্ষেত্রে। মুক্তির পর ভারতীয় চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শ্রী লক্ষ্মী প্রসন্ন পিকচার্স ২০১৭ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে তামিল ও তেলেগু ভাষায় নির্মাণের জন্য ‘আয়নাবাজি’র স্বত্ব কিনে নেয়। এরপর ‘গায়ত্রী’ শিরোনামে তারা সিনেমাটি পুনরায় নির্মাণ করে। ‘গায়ত্রী’ গত ৯ ফেব্রুয়ারি তেলেগু ভাষায় মুক্তি পেয়েছে। রিমেক এই সিনেমায় চঞ্চলের চরিত্রে দেখা গেছে তেলেগু অভিনেতা মোহন বাবুকে। এটি পরিচালনা করেছেন ম্যাডান রামিজানি।

এ প্রসঙ্গে অমিতাভ রেজা চৌধুরীর বলেন, ‘গায়ত্রী’ মুক্তি পেয়েছে আমি জানতাম না। তবে তারা আমাদের কাছ থেকে কপিরাইট কিনে পুনরায় নির্মাণ করেছেন। সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে শুনে  ভালো লাগছে। সেখানেও যদি সিনেমাটি ভালো চলে, সেই আনন্দ আমাদেরও ছুঁয়ে যাবে।’

বিনিময়ের ক্ষেত্রে এমন নিয়মের প্রচলন থাকলে নিঃসন্দেহে সেটা ভালো ফল বয়ে আনবে। পাশাপশি ভালো-মন্দ বোধ প্রায় সকল সমাজেই একই রকম সেটাও প্রতিষ্ঠিত হয়।