ব্রিটিশ সংসদে প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজন যৌন হয়রানির শিকার!

ব্রিটিশ সংসদের প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজন যৌন হয়রানির শিকার। তাদের এক প্রতিবেদনে এমনটাই স্বীকার করা হয়েছে। সংসদের লোকদের নিয়ে গঠিত একটি কমিটিই এ প্রতিবেদন দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, সংসদে কাজ করেন, এমন প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজন যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন।

সম্প্রতি সংসদ সদস্যদের বিরুদ্ধে একের পর এক যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠে। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে সংসদ সদস্যদের সমন্বয়ে আন্তদলীয় ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন ও যৌন হয়রানি প্রতিরোধে সংসদে নিপীড়নের ঘটনা অনুসন্ধানের নির্দেশ দেন। ব্রিটিশ সংসদ হাউস অব কমন্সের নেতা আন্দ্রে লিডসম বৃহস্পতিবার প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেন।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে,শুধু যৌন হয়রানি নয়,সংসদের ৩৯ শতাংশ কর্মী কর্মস্থলে নির্যাতন ও হয়রানির কথা বলেছেন। এসব কর্মীর মধ্যে ৪৫ শতাংশ নারী ও ৩৫ শতাংশ পুরুষ। গত বছর ব্রিটেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী স্যার মাইকেল ফ্যালন অশোভন যৌন আচরণ করার জন্য পদত্যাগ করেন।

এ ছাড়া পার্লামেন্ট সদস্য স্টেফেন ক্রাব, ক্রিস পিনসার, ড্যানিয়েল কাসজিনস্কিকেও সহকর্মীদের সঙ্গে অশোভন যৌন আচরণের অভিযোগ ওঠে। জাতীয় সংসদ যেখানে মানুষের কল্যাণে আইন প্রণয়ন করা হয় সেখানেই যদি এ অবস্থা বিরাজ করে তাহলে সারা দেশে যৌন হয়রানির অবস্থা যে আরও ভয়াবহ তাতে কোনো সন্দেহ নেই বলে মনে করেন অনেক বিশ্লেষক।